দেশনিউজ

রবিবার রাতে বৈদ্যুতিক সঙ্কটের সম্ভাবনা, চিন্তায় বিদ্যুৎ পর্ষদ

করোনা সংক্রমণে জর্জরিত গোটা দেশ। এরই মাঝে ৫ই এপ্রিল রাত ৯ টায় ঘরের সমস্ত আলো বন্ধ রেখে নয় মিনিটের জন্য মোমবাতি বা মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইট জ্বালাতে আবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার বিশ্বাস এরফলে করোনার ফলে তৈরি অন্ধকার দূর করে আলোর বার্তা দেওয়া যাবে। কিন্তু এই আবেদন চিন্তায় ফেলেছে বিদ্যুৎ মন্ত্রালয়ের কর্মকর্তাদের। কারণ গোটা দেশ যদি এটি মানে তাহলে বিকল হয়ে যেতে পারে সমস্ত পাওয়ার গ্রিডগুলি।

তারা জানিয়েছেন, “যদি নয় মিনিট বিদ্যুতের ব্যবহার বন্ধ রাখা হয় তাহলে প্রথমে গ্রিডের চাপ কমবে। কিন্তু এরপরই যদি আবার বিদ্যুৎ ব্যবহার শুরু হয় তবে হঠাৎ করে গ্রিডগুলোয় অনেক চাপ পড়বে, যার ফলে বিকল হয়ে যেতে পারে গ্রিডগুলি। এটি ভবিষ্যতে বড়সড় বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের সম্মুখীন করতে পারে গোটা দেশকে।” যার জেরে পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যুৎ পর্ষদ বাড়তি বিদ্যুতের জোগান রাখছেন আগে থেকেই। ৫ই এপ্রিল যাতে চাহিদার সঙ্গে জোগানের তারতম্য হয়ে গ্রিডে চাপ না পড়ে সেটি নিশ্চিত করতে চাইছে বিদ্যুৎ পর্ষদ।

এই বিষয়ে রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, “আমি দপ্তরের সমস্ত আধিকারিক ও ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে কথা বলে রেখেছি। আগে থেকেই তারা বাড়তি বিদ্যুতের জোগান করে রাখবেন, ফলে কোনও কারণে যদি রবিবার রাতের পর বিদ্যুৎ ঘাটতি দেখা দেয় তবে বাড়তি বিদ্যুৎ দিয়ে কাজ চালানো যাবে।”

Related Articles

Back to top button