জীবনযাপনসৌন্দর্যস্বাস্থ্য ও ফিটনেস

Skin Care Tips: ৫০ বছর বয়সে আপনি ৩০ বছরের মতো উজ্জ্বল হবেন, প্রতিদিন এই বিশেষ জিনিসটি খান

×
Advertisement

বার্ধক্য আমাদের জীবনের চিরন্তন সত্য, যা সকলের জানা জীবনে আসবেই একদিন। তবু মানুষের নিজের রূপ, সৌন্দর্য্য, ও যৌবনতা ধরে রাখার অদম্য ইচ্ছা আজও আছে। পুরাতন কালের বিভিন্ন উপাখ্যানে অসাধারণ ও অলৌকিক কিছু পদ্ধতির কথা উল্লেখিত আছে যা দিয়ে যৌবনকে নিজের বসে রাখা যায় কিন্তু সেই সব কাজ করে কি না তার পুষ্টির উপায় নেই কোনো। কিন্তু আজ আমরা এমন এক উপায় নিয়ে এসেছি জার দ্বারা কিছু পরিণামে আপনার দেহের ঔজল্লো টিকিয়ে রাখতে পারবেন আপনি।

Advertisement

আমরা সকলেই সবসময় তরুণ হয়েই থাকতে চায়। এর জন্য মানুষ অনেক ধরনের বিউটি প্রোডাক্টও ব্যবহার করে। কিন্তু বাজারে বিক্রি হওয়া বিউটি প্রোডাক্ট কখনো কখনো কখনো আমাদের ত্বকের বিষণ ক্ষতি করতে পারে। কিন্তু আজ আমরা আপনাকে এমনই একটি বিশেষ জিনিস সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি, যেটি প্রতিদিন সেবন করলে আপনাকে সবসময় তরুণ দেখাবে। এই জিনিসটি আমাদের রান্নাঘরে সহজেই পাওয়া যায়।

দেখে নেওয়া যাক কি কি জিনিস খাদ্য তালিকায় রাখলে, বার্ধক্যকে হারিয়ে দেওয়া সম্ভব হবে:-

Advertisement

১) প্রতিদিন এক চামচ ঘি খেতে হবে:-
আমরা ঘরে তৈরি বা খাঁটি ঘির কথা বলছি, বাজারে কেনা প্যাকেজড ঘি নয়। একটি সমীক্ষা অনুসারে, ঘি সবচেয়ে বিশুদ্ধ খাদ্য আইটেম হিসাবে বিবেচিত হয়। যদিও ঘি আপনার খাবারের স্বাদ বাড়ায়, কিন্তু এর সেবন আপনাকে বছরের পর বছর তরুণ দেখাতে পারে। এর জন্য আপনাকে এটি আপনার ত্বকের যত্নের রুটিনে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। প্রতিদিন মাত্র এক চামচ ঘি খেলে কিছু দিনের মধ্যেই আপনার মুখে তারুণ্যের আভা দেখা দিতে শুরু করবে।

এটা কখন ও কিভাবে সেবন করতে হয়, নিয়মাবলী জেনে নিন:-

নিজেকে তরুণ রাখতে ও চেহারা উজ্জ্বল দেখাতে ঘি বিশেষ নিয়ম এবং উপায় আছে। এর জন্য আপনি এক গ্লাস গরম জল নিন এবং তাতে এক চামচ ঘি দিন। এবার গ্লাসটির জল ভালো করে নেড়ে নিন, যাতে ঘি গলে যায় গরম জলে। এবার খালি পেটে পান করুন এই পানীয়। মনে রাখবেন এটি খাওয়ার পর আধা ঘন্টা অবদি আপনি আর কিছু খেতে পারবেন না। ঘিতে ভিটামিন এ, ই এবং ডি সমৃদ্ধ। এই তিনটি ভিটামিনই ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য একটি প্রাকৃতিক অ্যান্টি-এজিং প্রভাব প্রদান করে। তাই ঘির উপরে লেখা নিয়মে সেবন করলে মুখের উজ্জ্বলতা বজায় থাকে।

স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী:-
গাওয়া বা খাঁটি ঘি স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী বলে মনে করা হয় পুরাতন কাল থেকেই। এটিতে শুধু অ্যান্টি-এজিং বৈশিষ্ট্যই নয়, এতে ভালো চর্বিও রয়েছে যা হার্টের জন্যে ভালো। যদি এটি প্রতিদিন সকালে দুধের সাথে মিশিয়ে পান করা হয় তবে এটি একটি শক্তিশালী এনার্জি ড্রিংক তৈরি করতে পারে। এটি আপনাকে প্রচুর শক্তি দেবে এবং আপনি সারা দিন শক্তিশালী থাকবেন।

এই তথ্যের যথার্থতা, সময়োপযোগীতা এবং সত্যতা নিশ্চিত করার জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করা হয়েছে। তবে এটা ভারত বার্তার নৈতিক দায়িত্ব নয়। দয়া করে কোনো প্রতিকার চেষ্টা করার আগে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করার জন্য অনুরোধ করছি আমরা। আমাদের উদ্দেশ্য শুধুমাত্র আপনাকে তথ্য প্রদান করা।

Related Articles

Back to top button