আন্তর্জাতিকনিউজ

সাময়িক সুস্থ হতেই দেশের নাগরিকদের বার্তা দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

ইতিমধ্যেই ট্রাম্পের মেডিক্যাল টিম জানিয়েছে, পুরোপুরি সুস্থ না হলেও বাড়ি ফেরার মত অবস্থায় রয়েছেন তিনি। এমনকি ১৫ অক্টোবর প্রেসিডেন্টশিয়াল ডিবেট বৈঠকেও অংশ নিতে পারেন ট্রাম্প। সামনেই আমেরিকার নির্বাচন, তার আগেই করোনার কবলে পড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু এর  মধ্যেই শনিবার ভোটের কাজে লেগে পড়লেন ট্রাম্প।

এমনকি সমর্থকদের উদ্দেশে কথা বলার আগে মাস্ক খুলে ফেলতেও দেখা যায় তাঁকে। কিছু দিন আগেই করোনা আক্রান্ত হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এ কথা তিনি সস্ত্রীক টুইট করে নিজেই জানিয়েছিলেন ট্রাম্প। মাস্ক ছাড়াই বেশ বহাল তবিয়তে ঘুরছিলেন তিনি, বহু অনুষ্ঠানে তার বক্তব্যে স্পষ্ট ছিল যে মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা নেই। বর্তমানে সেই ভুলে রই মাশুল গুনছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলে মত অনেকের। এর মাঝেই নিজের ভুল নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগে তিনি একটি ভিডিও টুইট করেন ট্রাম্প।

এমনকি ওয়ালটার রিড ন্যাশেনাল মিলিটারি মেডিক্যাল সেন্টারে ভর্তি হতে চলেছেন সেই সংবাদও দেন তিনি।তিনি জানান, হাসপাতালে সারাদিন মেডিক্যাল স্যুট পরেই ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। আর সেখান থেকেই তাঁর প্রশাসনিক কাজকর্মও সেরেছেন তিনি। কিছুদিন আগেই কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই হাসপাতাল থেকে আচমকা বেরিয়ে পড়েন ট্রাম্প।

টুইটারে প্রকাশিত এক ভিডিয়োয় ট্রাম্প জানায়, “কোভিডের চিকিৎসা চলাকালীন অনেক কিছুই শিখলাম, জানলাম। এটাই আসল বিদ্যালয়। বিষয়টি ভাল ভাবে হবে।” আর এদিন মাত্র ১৮ মিনিটে সমর্থকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, “আমার খুব ভাল লাগছে। আগামী নির্বাচন আমাদের দেশের ইতিহাসে সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা ঘর থেকে বেরোন এবং ভোট দিন”।

Tags

Related Articles

Back to top button