কলকাতানিউজরাজ্য

যাদবপুরের পড়ুয়াদের ভয়ঙ্কর ভাষায় হুঁশিয়ারি দিলীপের!

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। গত, বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে হেনস্থার শিকার হন বাবুল সুপ্রিয়। এবিভিপির নবীনবরণ অনুষ্ঠানে গিয়ে পড়ুয়াদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীকে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেরোনোর সময়ও বাবুলকে নিগ্রহ।

সেখানে তাকে ঘিরে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান দেয় অতিবামপন্থি প্রভাবিত ছাত্র সংগঠনগুলি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর চুলের মুঠি ধরে চড়, ঘুসি। ছিঁড়ে দেওয়া হল বাবুলের জামা। তিন ঘণ্টা ধরে ঘেরাও বাবুল সুপ্রিয়। তারপর সেখানে আসে রাজ্যপাল কিন্তু তাতে কিছু সুফল মেলেনি। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়।

তার গাড়ি ঘিরেও বিক্ষোভ দেখিয়েছে ছাত্ররা। এইসব নিয়ে বাবুল সুপ্রিয় বলেন, “যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দুর্বল, ওনার অতি শীঘ্রই পদত্যাগ করা উচিত। উনি যদি আমাকে ১০ মিনিট আগে পরিস্থিতি সম্পর্কে সচেতন করতেন তাহলে আমি আসতাম না। একজন ভিসি পুলিশ পর্যন্ত ডাকতে পারেন না।

” তিনি আরও বলেন,‘ মেয়েরা অভব্য আচরণ করেছে ৷ জামা ছিঁড়ে দিয়েছে ৷ আমি প্রতিরোধ করলে ওরা দাঁড়াতেও পারত না ৷ কিন্তু আমি তা করিনি ৷ ওরা সব আর্টস ফ্যাকাল্টির এসএফআই-র সদস্য। আমার ক্ষমতা হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে রাজনীতি বন্ধ করব।

এই ঘটনার পরে এদিকে দিলীপ ঘোষও চুপ নেই। যাদবপুরের পড়ুয়াদের কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দেন তিনি। দিলীপ ঘোষ বলেন, “বেহায়ার সীমা ছাড়িয়েছে যাদবপুরের ছাত্ররা। আমাকে মারলে কীভাবে ওষুধ দিতে হয়, আমি জানি’।

Related Articles

Back to top button