×
বলিউডবিনোদন

রণবীরের জন্য বিয়ের ৪ বছর পরও মা হওয়ার সুখ পাচ্ছেন না দীপিকা পাড়ুকোন, নিজেই ফাঁস করলেন সিক্রেট

সন্তান না হওয়ার কারণ দীপিকা জানাতেই তা সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে গেছে

Advertisement

বলি জগতের অন্যতম নামজাদা সুপারস্টার দীপিকা পাডুকোনকে চেনেন না এমন মানুষের সংখ্যা নেই বললেই চলে। বলিউডের ‘মাস্তানি’ তাঁর অসাধারণ সুন্দর অভিনয় দক্ষতা দিয়ে মন জয় করেছেন কোটি কোটি ভারতবাসীর। মডেলিং, বিভিন্ন মিউজিক ভিডিওতে কাজ করে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি। আর এখন তো বি-টাউনের কুইন এই অত্যন্ত সুন্দরী অভিনেত্রী। একাধিক হিট ফিল্মে অভিনয় করে তিনি আন্তর্জাতিক প্রসিদ্ধ অভিনেত্রীর মর্যাদা পেয়েছেন। তবে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অভিনেত্রী সম্প্রতি এমনই এক মন্তব্য করেছেন যা শুনে চক্ষু চড়কগাছ হয়েছে নেটিজেনদের।

Advertisement

আসলে জীবনসঙ্গী রণবীর সিংয়ের সাথে অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন বিয়ে করেছেন প্রায় ৪ বছর আগে। বরাবর তাদের জীবনের রোমান্সের জন্য তাঁদের নাম দেওয়া হয়েছে রামলীলা জুটি। বলা যেতে পারে বলিউডের পাওয়ার কাপেল তারা। কিন্তু এখনো অব্দি তাদের সংসার আলো করে কোনো সন্তানের জন্ম নেয়নি। এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে নেটিজেনদের মধ্যে আলোচনা হলেও কেউ আসল কারণটি এতদিন জানতে পারেননি। আসলে স্বামী রণবীর সিং এখনো দীপিকাকে মা হওয়ার সুখ দিতে পারেনি। এটা অবশ্য কোনো নেটিজেনদের কথা না। অভিনেত্রী নিজেই এমন কথা এক সাক্ষাৎকারে প্রকাশ করেছিলেন।

কিছুদিন আগে দীপিকা পাড়ুকোন তার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেছিলেন যে তিনি চাইলেও মা হতে পারবেন না। এই বিবৃতি মুহুর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক ভাইরাল হয়ে গেছিল। সেই সাক্ষাৎকারেই তিনি জানিয়েছেন যে এর জন্য একমাত্র দায়ী স্বামী রণবীর সিং। তিনি বারংবার উল্লেখ করেন যে রণবীর সিং তাকে এই মুহূর্তে মা হওয়ার সুখ দিতে পারবেন না। কিন্তু কেন? জানতে প্রতিবেদনের শেষ অংশটি অবশ্যই পড়ুন।

Advertisement

ব্যাপারটা আপনি যেমন মনে করছেন ঠিক তেমনটা নয়। আসলে অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন বলেছিলেন যে তিনি চাইলেও রণবীর সিংয়ের সন্তানের জন্ম দিতে পারবেন না বর্তমানে। কারণ তারা দুজনেই অর্থাৎ দীপিকা-রণবীর একটি সিনেমার শুটিংয়ের কাজে ব্যস্ত রয়েছেন। তাই এই মুহূর্তে তাদের সন্তানের দায়িত্ব নেওয়া সম্ভব নয়। তাই বিয়ের ৪ বছর অতিক্রম হলেও দীপিকা রণবীরের এখনও সন্তানপ্রাপ্তি হয়নি।

Related Articles

Back to top button