কলকাতানিউজরাজ্য

আগামী সপ্তাহে আছড়ে পড়বে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, তুমুল বৃষ্টির সম্ভাবনা কলকাতায়

আগামী ২৬ মে নাগাদ দীঘা উপকূলে আছড়ে পড়তে চলেছে ঘূর্ণিঝড় যশ

×
Advertisement

আম্ফান শেষ হতে না হতেই এবারে বাংলার দিকে আসতে চলেছে নতুন ঘূর্ণিঝড় যার নাম যশ। এখনো পর্যন্ত আমফানের ক্ষত পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলার মানুষের মনে দগদগে। তার মধ্যেই আসছে নতুন ঝড়। ২৩ মে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে পারে একটি গভীর নিম্নচাপ। আর সেই নিম্নচাপ অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে সাইক্লোন এর আকার ধারণ করবে।

Advertisement

ইতিমধ্যেই সকলে টাউক্তে নামক ঘূর্ণিঝড়টির সঙ্গে অবগত। ভারতবর্ষে পশ্চিম উপকূলের রাজ্যগুলিতে তাণ্ডব চালিয়েছে কিছুদিন আগেই এই ঘূর্ণিঝড়। এখনো সেই ক্ষয়ক্ষতি রেশ কাটেনি তার মধ্যেই মৌসম বিভাগ জানিয়ে দিয়েছে, ভারতবর্ষের পূর্ব উপকূলে এবার একটি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আসতে চলেছে। আগামী ২৬ মে বিকেলে পশ্চিমবঙ্গ এবং উড়িষ্যায় এই ঘূর্ণিঝড় আছরে পড়তে চলেছে।

অনেকে আবার বলছেন এই ঘূর্ণিঝড় আম্ফান এর থেকেও অনেক বেশি শক্তিশালী হতে চলেছে। তবে আম্ফান এর থেকেও শক্তিশালী ঝড় যদি হয় তাহলে, পশ্চিমবঙ্গের জন্য বিষয়টি খুব খারাপ হবে। আমফানের যা গতিবেগ ছিল, তার থেকেও বেশি গতিবেগ নিয়ে যশ আসলে লন্ডভন্ড হয়ে যাবে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী এলাকা। ২৫ মে থেকে শুরু হয়ে যাবে পশ্চিমবঙ্গে মাঝারি বৃষ্টিপাত। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে বাংলা এবং উড়িষ্যা উপকূলে ২৬ মে এই ঘূর্ণিঝড় আসবে।

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গে দিঘার কাছাকাছি জায়গায় এই ঘূর্ণিঝড় আসতে চলেছে। পাশাপাশি আগামী সপ্তাহে মঙ্গল থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কলকাতায় তুমুল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এই ঝড় নিয়ে অত্যন্ত চিন্তিত রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দফায় দফায় বিপর্যয়ের মোকাবিলা কমিটির সঙ্গে বৈঠক করছেন। জারি করা হচ্ছে সতর্কতামূলক নির্দেশিকা। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সরকারি কর্মীদের ছুটি বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। হেলিকপ্টারে করে নজর রাখা হচ্ছে হিঙ্গলগঞ্জ এবং সন্দেশখালিতে। সমুদ্র থেকে সমস্ত নৌকা ট্রলার সবকিছু ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি মৎস্যজীবীদের জন্য জারি করে দেওয়া হয়েছে রেড অ্যালার্ট।

Related Articles

Back to top button