নিউজরাজ্য

বিহার থেকে খালি হাতেই ফিরে আসতে হলো সিআইডিকে , হেফাজতে পাওয়া গেল না মনীশ খুনে মূল অভিযুক্তকে

পাটনা: বিজেপি নেতা মনীশ শুক্লা খুনে কার্যত উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল গোটা ব্যারাকপুর। ভর সন্ধ্যেবেলা অর্জুন সিংয়ের ডানহাত বলে পরিচিত এই বিজেপি নেতাকে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে খুন করে দুষ্কৃতীরা। তারপরে কার্যত উত্তাল হয়ে ওঠে গেরুয়া শিবির। ঘটনার সিআইডি তদন্ত দাবি করে বিজেপি। আর সেই মতো সিআইডির কাঁধে তুলে দেওয়া হয় তদন্তভার। তদন্ত করতে নেমে পরতে পরতে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসে। মূল অভিযুক্ত সুবোধ সিং বিহারের জেলে বসে এই খুনের ছক কষেছে। আর তাকেই হেফাজতে নিতে বিহারে রওনা দিয়েছিলেন সিআইডি আধিকারিকরা। কিন্তু রওনা দেওয়াই সার। আইনি বেড়াজালের ঘেরাটোপে সিআইডি হেফাজতে পেল না সুবোধকে। ফলে খালি হাতে ফিরে আসতে হল সিআইডির দলকে।

জানা গিয়েছে, সামনেই বিহারে বিধানসভা নির্বাচন। আর তাই তার আগে সুবোধের মতো দাগি অপরাধীকে ছেড়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ বিহার সরকার। তাছাড়াও সুবোধের নামে পাঁচটি রাজ্যের মামলা ঝুলে রয়েছে। এমতাবস্থায় তাকে এ রাজ্যের গোয়েন্দা আধিকারিকরা হেফাজতে নেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু আইনি জটিলতা রয়েছে। আর তাই তাকে এই মুহূর্তে হেফাজতে নেওয়া গেল না।

তবে বিহারে ভোট মিটে গেলে কি সুবোধকে তুলে দেওয়া হবে এ রাজ্যের সিআইডি আধিকারিকদের হাতে? এমন প্রশ্নই এখন উঠছে। এদিকে মনীশ খুনে ছয় অভিযুক্তের একজনকে এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বিহার থেকেই সিআইডির হাত ফসকে বেরিয়ে যায় এই অভিযুক্ত। এমনকি নাসির খান নামে আর এক যে অভিযুক্তের নাম উঠে এসেছে, তাকেও হেফাজতে নেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু আইনি জটিলতা রয়েছে। কারণ তিনি বাংলাদেশি। সব মিলিয়ে মনীশ খুনের কিনারা এখনই এত সহজভাবে করে ফেলা যাবে না, এমনটাই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

Tags

Related Articles

Back to top button