ভাইরাল & ভিডিও

ষাঁড়ের গুতোয় ভাঙলো গাড়ি, হাঁ করে তাকিয়ে দেখল পর্যটকেরা, ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়া এখন আমাদের নিত্যদিনের জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হয়ে উঠেছে। আমরা দিনের বেশিরভাগ সময়টাই কাটাই সোশ্যাল মিডিয়ায়। সোশ্যাল মিডিয়া গোটা দুনিয়াটাকেই এনে দিয়েছে হাতের মুঠোয়। আমরা ঘরে বসেই এমনসব দৃশ্যের সাক্ষী হয়ে থাকি যা হয়তো সচরাচর হওয়া সম্ভব নয়। প্রতিদিন প্রতিনিয়ত নেটমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভিডিওর মধ্যে খুব কম এমন ভিডিও দেখে যায় যা দেখে চোখ কপালে ওঠে সাধারণের। সম্প্রতি তেমনই এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে নেটনাগরিকদের মধ্যে।

সম্প্রতি বলিউডের পরিচালক নিজের ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন যা ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছে নেটনাগরিকদের মধ্যে। পরিচালকের শেয়ার করা ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে একটি ষাঁড় রীতিমতো ফুঁসতে ফুঁসতে এসে লোকভর্তি গাড়িতে গুঁতোতে শুরু করে। আর তারপরেই তার সিংয়ের আঘাতে গাড়ির চাকা ভেঙে যায়। এমনকি গাড়ির মধ্যে থাকা পেট্রল ট্যাঙ্কি ফেটে গিয়ে সমস্ত পেট্রোল বেরিয়ে আসে। ষাঁড়টি গুতিয়ে গুতিয়ে রীতিমতো খারাপ অবস্থা করে দিয়েছিল গাড়িটির। গাড়ির মধ্যে বসে থাকা যাত্রীদের ঠিক কি অবস্থা হয়েছিল সেইসময়ে! বলা মুশকিল। সেইসময়ে আশেপাশে যারা ছিলেন তারা রীতিমত ভয়ে সরে গিয়েছিলেন ঐ জায়গা থেকে। আর সেটাই স্বাভাবিক। কারণ ঐ মুহূর্তে ষাঁড়টিকে থামাতে যাওয়া মানে নিজের বিপদ ডেকে আনা।

ভিডিওটি শেয়ার করার পর থেকেই তা ভাইরাল হয়েছে। এই ভিডিওটি দেখার পর থেকেই নাগরিকদের মধ্যে প্রশ্ন উঠেছে হঠাৎ এমন কাণ্ড ঘটলো কেন? ভিডিওটি দেখে এইটুকু স্পষ্ট এটি ভারত নয়, বিদেশের কোনো একটি জায়গা। বিক্রম ভাট এই ভিডিওটি শেয়ার করে ক্যাপশনে লিখেছেন, “নতুন সংযোজন ট্রাফিক পুলিশ বুল- নো পার্কিং মানে নো পার্কিং! ! বুঝেছেন! !”

সম্প্রতি এমন দৃশ্য দেখে রীতিমতো আঁতকে উঠেছেন নেটিজেনদের একাংশ। তবে পরিচালক এই ভিডিওটি কোথা থেকে পেয়েছেন তার সূত্র জানা যায়নি। ভিডিওটি দেখে বেশ পুরনোই মনে হচ্ছে। তবে যদি সত্যিই এমন ঘটনা ঘটে তাহলে আত্মারাম খাঁচা হয়ে গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Related Articles

Back to top button