দেশনিউজরাজ্য

কলকাতায় তৃণমূলের সঙ্গে বৈঠকে ত্রিপুরার একাধিক প্রথম সারির বিজেপি নেতা, জোর জল্পনা দলবদলের

দেখুন কারা কারা কলকাতায় এসে তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেছেন



কিছুদিন আগে থেকেই ত্রিপুরার প্রথম সারির বিজেপি নেতা সুদীপ রায় বর্মন এর সঙ্গে তৃণমূলের যোগাযোগ নিয়ে বেশ কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েছে ত্রিপুরা বিজেপি। ত্রিপুরার বিজেপির নেতা সুদীপ রায় বর্মন আজকে সকালেই তার সম্পূর্ণ দলবল নিয়ে কলকাতায় এসেছেন। কলকাতায় এসে তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে তার। সেই থেকেই রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনা শুরু, তাহলে কি এবারে সত্যি সত্যি তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন সুদীপ রায় বর্মন?

সুদীপ রায় বর্মন যদি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন তাহলে কিন্তু বিজেপির মধ্যে ভাঙ্গনের সম্ভাবনা শুরু হয়ে যাবে। বিজেপিতে থাকাকালীন তার একটি আলাদা দলবল রয়েছে। বিজেপিতে ত্রিপুরার একজন বড় নেতা হিসেবে জনপ্রিয় সুদীপ রায় বর্মন। তার অনুরাগীর সংখ্যা নেহাত কম নয়। বিজেপিতে থাকাকালীন সময়ে কিন্তু ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সঙ্গে তার সম্পর্ক খুব একটা ভালো নয়। এর আগেও তৃণমূল নেতা মুকুল রায়ের হাত ধরে সুদীপ রায় বর্মন তৃণমূলে যোগদান করেছিলেন। কিন্তু তারপরে যখন মুকুল রায় বিজেপিতে চলে যান তখন তার হাত ধরেই আবার বিজেপিতে গিয়েছিলেন তিনি।

এবারে যখন বিজেপি ছেড়ে মুকুল রায় আবারো তৃণমূলের ঘরে ফিরে এসেছেন, তারপর থেকেই সম্ভাবনা বৃদ্ধি পেয়েছে সুদীপ রায় বর্মন আবারো বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করতে চলেছেন। তবে শুধুমাত্র সুদীপবাবু নয় তার সঙ্গে আরও একজন বিধায়ক কলকাতায় এসেছেন বলে খবর। কলকাতায় তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে সুদীপবাবুর বৈঠক করার কথা রয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত জানা যায় নি কবে এই বৈঠক হবে কিংবা এই বৈঠক নিয়ে কিরকম কি কথা হতে চলেছে।

যদিও ত্রিপুরায় ইতিমধ্যেই তৃণমূলে যোগ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন অনেকেই। তার মধ্যে প্রথম নাম হলো ত্রিপুরার পাঁচবারের বিজেপি বিধায়ক জিতেন সরকার। তিনি বেশ কিছুদিন ধরে কলকাতায় রয়েছেন। তিনি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে চিঠি লিখে তৃণমূলে যোগদান করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন, যার ব্যাপারে তৃণমূল নেত্রী নিজেও কথা বলেছেন।তাই কার্যত জিতেন সরকারের তৃণমূলে যোগদান শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা। তার পাশাপাশি আরও বেশ কয়েকজন বিজেপি নেতা তৃণমূলে যোগদান করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা কুনাল ঘোষ জানিয়েছেন, বিজেপির বহু নেতা তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। অভিষেক বন্দোপাধ্যায় ইচ্ছা প্রকাশ করলে ত্রিপুরায় বিজেপি সরকার ফেলে দিতে পারেন তারা, সেরকম তাই মনে করছে তৃণমূল কংগ্রেস।

Related Articles

Back to top button