নিউজপলিটিক্সরাজ্য

খাস কলকাতায় লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের প্রচার করলেন এই বিজেপি নেত্রী, আবার দলবদল?

বিজেপি নেত্রী সুনিতা ঝাওয়ার তার এলাকা বড় বাজারে এই প্রকল্পের প্রচারপত্র বিলি করেছেন

×
Advertisement

একুশের নির্বাচনের আগে থেকেই দুয়ারের সরকার প্রকল্প শুরু করে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জায়গায় জায়গায় এই ক্যাম্প হয়েছে। অনেকে ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের সুবিধা গ্রহণ করতে পেরেছেন। জয়লাভের পর এবার দুয়ারে সরকার প্রকল্পের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার নতুন কর্মসূচিতে দুটি নতুন প্রকল্প রয়েছে। একটি হলো লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প এবং অপরটি স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড। এই দুটি প্রকল্পে সাধারণ মানুষের সুবিধার জন্য একাধিক জনমুখী ঘোষণা রয়েছে।

Advertisement

তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা এই প্রকল্পের প্রচার করবেন এটা খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু একজন বিজেপি নেত্রী এই দুয়ারে সরকার প্রকল্পের স্বপক্ষে প্রচার করছেন, এই বিষয়টি অত্যন্ত দৃষ্টিকটু। খাস কলকাতায় এই ঘটনা ঘটার ফলে কার্যত চক্ষু চড়কগাছ সাধারণ মানুষের। পাশাপাশি এই বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো অস্বস্তিতে পড়েছে বঙ্গ বিজেপি।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, বড় বাজারে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের বেশি প্রশংসা করে তাতে মহিলাদের যোগ দিতে বলে প্রচারপত্র বিলি করতে শুরু করেছেন একজন বিজেপি নেত্রী। এই বিজেপি নেত্রী হলেন কলকাতার ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর সুনিতা ঝাওয়ার। এই উদ্যোগের কারণ জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ” আমার এলাকায় অর্থাৎ বড়বাজারে বেশিরভাগ মানুষ হিন্দিভাষী। আমি কো-অর্ডিনেটর হিসেবে মানুষকে এই প্রকল্পের বিষয়ে জানাতে লিফলেট ছাপিয়ে বিলি করতে শুরু করেছি। নিজের ওয়ার্ডে আমি মোটামুটি ২০০ এর কাছাকাছি লিফলেট বিলি করেছি।”

Advertisement

তবে কি, দলবদল এর স্রোতে তিনিও গা ভাসাচ্ছেন? সেরকমটা হয়তো নয় কারণ এই লিফলেট এর দুই ধারে রয়েছে পদ্মের ছাপ, অর্থাৎ তিনি এখনো পর্যন্ত বিজেপিতে আছেন। কিন্তু যেহেতু তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই প্রকল্প সত্যিই সাধারণ মহিলাদের কাজে লাগবে, এই কারণেই এই ধরনের লিফলেট বিলি করতে শুরু করেছেন বিজেপি নেত্রী। স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় মস্তিষ্কপ্রসূত একটি প্রকল্পের প্রচার করছেন একজন বিজেপি নেত্রী। এই সম্পূর্ণ লিফলেট ছাপানোর রয়েছে হিন্দি ভাষায় এবং দুই পাশে রয়েছে পদ্মের ছাপ।বিষয়টি নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা কুনাল ঘোষ বলছেন, “আয়ুষ্মান ভারত এর সুবিধা সকলে পায় না। কিন্তু স্বাস্থ্যসাথী সকলে পায়। বিজেপি জনপ্রতিনিধিরা দেখছেন রাজ্যের প্রকল্পগুলি ভালো, মানুষ গ্রহণ করছেন। তাই তারা আর বাইরে থাকবেন কি করে? তাই তারাও এবারে হাত লাগাতে শুরু করছেন।” তবে বিজেপি নেত্রীর তৃণমূলের প্রকল্পের প্রচার নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে।

Related Articles

Back to top button