কলকাতানিউজ

মুখ্যমন্ত্রীকে পাগড়ি উপহার দিয়ে দূরত্ব মেটাতে চান বলবিন্দরের স্ত্রী

Advertisement

কলকাতা: বিজেপির নবান্ন অভিযানে নেতা প্রিয়াংশু পাণ্ডের দেহরক্ষী বলবিন্দর সিংকে গ্রেফতার করার সময় তার পাগড়ি টেনে খুলে দেওয়ার ঘটনায় কার্যত সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে রাজ্যের শাসক দলকে। পরবর্তী সময়ে এই ঘটনার ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই মাঠে নামতে হয়। এমনকি পুজোর উপহার হিসেবে বলবিন্দরের স্ত্রীকে সালওয়ার স্যুট উপহার দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কাছ থেকে এমন উপহার পেয়ে তাঁকে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বলবিন্দর-,পত্নী। আর এবার অভিমান ভুলে আরও কাছাকাছি আসতে চান বলবিন্দরের স্ত্রী। তাই পাল্টা উপহার হিসেবে মুখ্যমন্ত্রীকে পাগড়ি উপহার দিতে চান করমজিৎ।

বলবিন্দরকে গ্রেফতার করার ঘটনায় রাজ্যপালের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তার স্ত্রী। এমনকি স্বামীকে মুক্তি দেওয়া না হলে ছেলেকে নিয়ে নবান্নে অবস্থান-বিক্ষোভ করবেন বলেও হুমকি দিয়েছিলেন তিনি। তারপরই রাজ্যপাল রাজ্য সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন। এরপর এই অবস্থা অন্যদিকে বইতে দেখে ময়দানে নেমে নিজে হাতে এই ঘটনার রাশ টানলেন মমতা। বলবিন্দরের স্ত্রীকে সালোয়ার সুট উপহার দেওয়ায় মমতাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দিল্লির শিক গুরুদুয়ার কমিটির প্রধান মনজিন্দর সিং।

প্রসঙ্গত, গত ৮ অক্টোবর বিজেপির নবান্ন অভিযান ঘিরে কার্যত কলকাতার রাজপথ রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল। হাওড়া এবং কলকাতা থেকে মোট চারটি মিছিল বের হয়। বিজেপি কর্মীদের ওপর পুলিশ হামলা চালায় বলে অভিযোগ করা হয়। এমনকি এই অভিযোগে নেতৃত্ব দিতে আসেন বিজেপির যুব মোর্চা সহ-সভাপতি তেজস্বী সূর্য। তারপরেই বিজেপির অভিযান থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ গ্রেফতার করা হয় বলবিন্দরকে। যদিও গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে বলা হয়, তার কাছে থাকা এই আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্সপ্রাপ্ত। তবে তা কর্ণপাত না করে পুলিশ গ্রেফতার করে তাকে এবং তার পাগড়ি খুলে দেয়। এই ঘটনার পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয় রাজ্য সরকারকে। কিন্তু অবশেষে মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে এই ঘটনার নিষ্পত্তি হল বলেই মনে করা হচ্ছে।

Tags

Related Articles

Back to top button