আন্তর্জাতিকনিউজ

ক্রমাগত বাড়ছে আতঙ্কের পারদ! নাগারনো-কারাবাখ সংঘর্ষে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ

Advertisement

নাগারনো-কারাবাখ অঞ্চলটি নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে দুদেশের লড়াই এবং তাকে ঘিরে উত্তেজনা ক্রমশ তীব্র হচ্ছে।ইতিমধ্যেই গাজায় আর্মেনিয়াই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। যদিও এর আগে আগে আজারবাইজান বাহিনীই নাগারনো-কারাবাখ অঞ্চলের রাজধানী এলাকায় গোলাবর্ষণ করে বলেও পাশাপাশি অভিযোগ উঠছে। প্রসঙ্গত, দক্ষিণ ককেশাসের নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলের মালিকানা নিয়ে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে এক সপ্তাহ ধরে যুদ্ধ চলছে।

যার জেরে প্রান হারিয়েছেন বহু মানুস। বিতর্কিত দুই অঞ্চল নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান- দুই দেশের মধ্যে ঝামেলা লেগেই থাকে। দুই দেশের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ এখন রোজকার ঘটনা। যার জেরে ইতিমধ্যেই অন্তত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি এখন যথেষ্ট উত্তপ্ত রয়েছে৷ ৯৯৪ সালের লড়াইয়ের পর থেকে এই দুপক্ষের লড়াই লেগেই আছে। বিষয়টা অনেকটা আগ্নেয়গিড়ির মতন।

কখনো থেমে থাকে কখনো আবার চাগর দিয়ে ওঠে, এর আগে ২০১৬ সালে ওই এলাকায় সংঘর্ষে ১১০ জন নিহত হয়েছিলেন। এমনকি ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে যাওয়ার পরে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান দেশ দু’টি স্বাধীন হয়। তার পরে থেকে রাশিয়ার ইন্ধনে আর্মেনীয়রা ধীরে ধীরে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল দখল করে বসে।

এমনকি পরিস্থিতি এওটাই উত্তেজিত যে এখানে মানুষ রিতিমত আতঙ্কিত এবং এই ঘত্নায় এখনো পর্যন্ত বহু মানুষ আহত হয়েছেন। অন্য দিকে এই অশান্তির মাঝে নাগারনো-কারাবাখের বিচ্ছিন্নতাবাদী বাহিনী দাবি করছে, তারা গাজা শহরে হামলা চালিয়ে সেখানকার বিমানঘাঁটি ধ্বংস করেছে। অসংখ্য মানুষ এর মধ্যেই বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন এই শহর ছেড়ে চলে যাচ্ছেন, বজায় রয়েছে শুধু সাইরেন আর গোলা বিস্ফোরণের শব্দ।

 

 

 

Tags

Related Articles

Back to top button