কলকাতানিউজ

প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য গুলি কিনতে এসে গ্রেফতার ধর্ষিতার স্বামী

Advertisement

কলকাতা: স্ত্রীকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করতো প্রতিবেশী ফুচকাওয়ালা যুবক। এই ঘটনা জানতে পেরে সেই যুবককে মেরে ফেলার ছক কষে ফেলে স্বামী। সেইমতো বন্দুক কেনার পর একটি গুলি কিনতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে যায় ধর্ষিতা স্ত্রীর স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে নিউটাউন থানার অন্তর্গত ইকোপার্কের আকাঙ্ক্ষা মোড়ে।

জানা গিয়েছে, বরানগরের ন’পাড়ার বাসিন্দা রাজা দাস। দীর্ঘদিন ধরে তার স্ত্রী তাকে ভাড়া বাড়ি ছেড়ে দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন। কিন্তু তিনি ভাড়া বাড়ি ছাড়ার কারণ জানতে চান। শেষমেষ কিছু বলে উঠতে পারে না তার স্ত্রী। কিন্তু ঘটনা সীমা পেরিয়ে যাচ্ছে দেখে অবশেষে স্বামীর কাছে সবকিছু বলতে বাধ্য হন ধর্ষিত স্ত্রী। তিনি বলেন, প্রতিবেশী এক যুবক দিনের পর দিন তাকে ধর্ষণ করে চলেছে। কিন্তু তিনি বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেও দিতে পারেননি। তাই ভাড়া বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে চান স্ত্রী। সমস্ত কিছু স্ত্রীর মুখে শুনে পুলিশের দ্বারস্থ হতে চান রাজা দাস। কিন্তু পরবর্তীকালে পরিকল্পনা পরিবর্তন করে ওই ফুচকাওয়ালা অভিযুক্ত যুবককে মেরে ফেলার ছক কষে ফেলেন রাজা। তাই একটি বন্দুক এবং একটি গুলি কিনে ফেলেন তিনি। কিন্তু একটি গুলিতে যদি কার্যসিদ্ধি না হয়, এই ভেবে আবার নিউটাউনে গিয়ে আরও একটি গুলি কেনার পরিকল্পনা করেন রাজা। এমন সময় নিউটাউন থানার কাছে খবর যায়, এক ব্যক্তি গুলির স্যাম্পল নিয়ে ইকোপার্কের আকাঙ্ক্ষা মোড়ের কাছে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি পুলিশ সেখানে পৌঁছায় এবং হাতেনাতে রাজাকে গ্রেফতার করে।

পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়ে সমস্ত কিছু স্বীকার করে। নিজের স্ত্রীয়ের ধর্ষণ হওয়ার ঘটনা পুলিশকে বর্ণনা করেন তিনি। এমনকি অভিযুক্ত যুবকের মেরে ফেলার যে পরিকল্পনা তিনি করেছিলেন, সে কথাও তিনি স্বীকার করেছেন। তারপর পুলিশ রাজাকে নিজেদের হেফাজতে নেয়। আজ, শুক্রবার তাকে বারাসাত কোর্টে তোলা হয়। সেখানে পুলিশ নিজেদের হেফাজতে রাজাকের নেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছে।

Tags

Related Articles

Back to top button