×
বলিউডবিনোদন

‘ওড়না দিয়ে শরীর ঢাকো’, অনুষ্ঠানের মাঝে সঞ্জুবাবার মন্তব্যে রেগে লাল হয়েছিলেন আমিশা প্যাটেল

একটি ছোট্ট মনোমালিন্যের কারণে সঞ্জয় দত্ত ও আমিশার বন্ধুত্বে বড় ফাটল ধরেছিল

Advertisement

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে ‘ব্যাড বয়’ তকমা যদি কেও পেয়ে থাকেন, তাহলে তিনি হলেন জনপ্রিয় অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। তবে শত বিতর্ক মাঝেও, শুধুমাত্র অভিনয় দক্ষতার দমে লাখ লাখ ফ্যান রয়েছে এই অভিনেতার। তাই তো যখন সঞ্জয় দত্ত ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন, তখন চোখে জল চলে এসেছিল অনেকের। আবার তিনি চর্চায় আসেন তাঁর ব্যক্তিগত জীবনের জন্য। আশির দশকে ড্রাগে আসক্ত হয়ে পড়া থেকে শুরু করে বেআইনি অস্ত্র রাখার জন্য সঞ্জুবাবাকে জেলেও যেতে হয়েছিল। তবে অসাধারণ অভিনয় দক্ষতার সুবাদে গোটা দেশের মধ্যে তাঁর জনপ্রিয়তা কম নয়। তিনি অভিনয় ক্যারিয়ারে একাধিক হিট হিন্দি ফিল্ম ভারতীয়দের উপহার দিয়েছেন।

Advertisement

একটা সময় খুব ভালো বন্ধু ছিলেন সঞ্জয় দত্ত এবং আমিশা প্যাটেল। বলা যেতে পারে তাদের বন্ধুত্ব এতই ভালো ছিল যে তারা একসাথে অনেক সময় কাটাতেন। আমিশার সাথে ভালো সম্পর্ক ছিল সঞ্জয় দত্ত পত্নী মান্যতারও। তবে এই তারকা-জুটির মধ্যে হঠাৎ করেই বন্ধুত্বের সম্পর্কে ফাটল ধরে। তারপর থেকে তারা একে অপরকে এড়িয়ে চলেন। বলি ইন্ডাস্ট্রিতে প্রিয় বন্ধুদের মধ্যে এমন সম্পর্ক বিচ্ছেদ নতুন কিছু নয় অবশ্য। এর আগেও শাহরুখ কাজল এবং করণ জোহর করিনার সম্পর্কের ফাটল দেখেছে নেটিজেনরা।

জানা যায়, ২০১১ পর্যন্ত বেশ ভাল সম্পর্ক ছিল সঞ্জয় দত্ত এবং আমিশা প্যাটেলের মধ্যে। কিন্তু সেই সম্পর্কে ফাটল ধরে ২০১২ সালে গোয়ার একটি অনুষ্ঠানে। রোহিতের বিয়ে উপলক্ষে পরিচালক ডেভিড ধাওয়ান এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। স্বভাবতই সেখানে উপস্থিত ছিলেন বলিউডের বড় বড় তারকা। জানা যায় ওই দিনের অনুষ্ঠানে আমিশা প্যাটেল একটি খোলামেলা পোশাক পরে এসেছিলেন। তখনই হঠাৎ করে সঞ্জুবাবা ওড়না দিয়ে আমিশাকে তার শরীরের অনাবৃত অংশ ঢাকার কথা বলেন। সঞ্জুবাবার এমন মন্তব্য একদমই মেনে নিতে পারেনি আমিশা প্যাটেল। উল্টে তিনি এসব বিষয় নিয়ে সঞ্জয় দত্তকে ব্যস্ত হতে নিষেধ করেন।

Advertisement

এখানেই শেষ হয়নি। অনুষ্ঠানে সকলের সামনে সঞ্জয় দত্ত ওড়না দিয়ে আমিশার পোশাকের সামনে অংশটুকু ঢেকে দেন। এতে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়ে অনুষ্ঠানে সকলের মাঝেই রীতিমত চিৎকার শুরু করে দেন অভিনেত্রী। সঞ্জুবাবাকে বিভিন্ন তির্যক মন্তব্য করেন তিনি। সকলের সামনে অপমানিত হয়ে ওই মুহূর্তেই অনুষ্ঠান ছাড়েন সঞ্জয় দত্ত। পরের দিনই নাকি তিনি মুম্বাইতে ফিরে এসেছিলেন। একটি ঘটনার জন্য সঞ্জয় দত্ত এবং আমিশা প্যাটেলের বন্ধুত্বে ফাটল ধরে। এমনকি এখনও অব্দি একসাথে দুজন কোনো সিনেমাতে অভিনয় করেননি।

জানা যায়, আমিশা প্যাটেলের সাথে দুটি সিনেমার অফার পেলেও তাতে রাজি হননি সঞ্জয় দত্ত। পরে অভিনেত্রী এই মনোমালিন্য মিটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেও, সঞ্জয় দত্ত সেই দিক দিয়ে কোন তেমন সাড়া দেননি। এই প্রসঙ্গে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, “সঞ্জয় আমাকে নিয়ে খুব চিন্তা করত। ও আমার খুব ভালো বন্ধু ছিল। কোনদিন আমার সাথে সঞ্জয় খারাপ ব্যবহার করেনি। আমাকে কেউ খারাপ ভাবে স্পর্শ করলে তাকে সঞ্জয় খুন করে ফেলত। আমার গায়ে একটা মশা মাছির কামড় বসাতে দিত না।”

Related Articles

Back to top button