কলকাতানিউজরাজ্য

অনলাইনে পরীক্ষা দেওয়া নিয়ে প্রত্যন্ত এলাকার পড়ুয়াদের মাথায় হাত

কলকাতা: পুরোপুরি ইন্টারনেটের ওপর ভর করেই আগামী 1 অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলেছে স্নাতক স্তরের ফাইনাল সেমিস্টার। তবে এই অনলাইন পরীক্ষা হবে বাড়িতে বসেই। আগেই এ কথা জানানো হয়েছিল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। এর ফলে দু’ঘণ্টার মধ্যে লেখা শেষ করে 15 মিনিট আগে কলেজের নির্ধারিত করা ওয়েবসাইটে খাতা জমা দিতে হবে পরীক্ষার্থীদের।

কিন্তু প্রত্যন্ত এলাকা যেখানে ইন্টারনেট তো দূরে থাক, লাইট ঠিকভাবে পৌঁছায়নি এখনও। সেখানকার পড়ুয়ারা কী করে অনলাইনে পরীক্ষা দেবে, তা নিয়েই পড়ুয়াদের মধ্যে ভাবনাচিন্তা শুরু হয়েছে। শুধু তারাই নয়, ভাবনায় পড়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষও। পরীক্ষার সময় পরীক্ষার্থীদের যাতে কোনও অসুবিধা না হয়, তাই কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলি ইতিমধ্যেই মক টেস্ট নিয়ে পুরো সিস্টেমটাকে টেস্ট করছে। অনেকে আবার পরীক্ষার জন্য একটি হোয়াৎসঅ্যাপ গ্রুপও তৈরি করেছে।

অনলাইনে পরীক্ষা দিতে যাতে কারুর কোনও অসুবিধা না হয়, তাই সেই পরীক্ষার দিনগুলোতে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের কলেজগুলোতে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এমনকি অনলাইনে খাতা জমা দিতে যদি কোনও অসুবিধা হয়, তাহলে পরীক্ষার্থী কলেজে এসে সেই খাতা জমা করতে পারে, সেই ব্যবস্থা করা হবে বলে শিক্ষা দফতরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে। সব মিলিয়ে ঘরে বসে অনলাইন পরীক্ষা হলেও মাথায় একটা চিন্তা রয়ে গিয়েছে যে, সব ঠিকঠাক করে দেওয়া হবে কিনা।

Tags

Related Articles

Back to top button