×
বলিউডবিনোদন

অজয় দেবগনের মেয়ে বলিউডের কোন অভিনেত্রীর থেকে কম নয়, সৌন্দর্যের দিক দিয়ে মাকেও টেক্কা দেয়

অজয় দেবগন এবং কাজলের কন্যা নাইসা দেবগন এখন ইন্টারনেট সেনসেশন

Advertisement

বলিউড জগতে অজয় দেবগন এবং তাঁর স্ত্রী কাজল সর্বদাই চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকেন। তবে নতুন করে পাপারাজ্জিদের দৌলতে ইন্টারনেট সেন্সেশন হয়ে উঠছেন অজয় দেবগন এবং কাজলের কন্যা নাইসা দেবগন। এমনিতেই বলিউডের স্টার কিডরা সর্বদাই লাইমলাইটে থাকেন। তেমনি বর্তমানে নাইসা বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে তাঁর একাধিক ছবি ভাইরাল তালিকায় নাম লিখিয়েছে। এমনকি এখনও অব্দি বলিউডে কোনো কাজ করার আগেই নাইসার নামে একাধিক ফ্যানপেজ রয়েছে। মাঝেমাঝেই সৌন্দর্যের জন্য নাইসা খবরের শিরোনামে চলে আসেন।

Advertisement

আসলে সোশ্যাল মিডিয়াতে খুবই সক্রিয় থাকেন অজয় দেবগনের কন্যা। প্রায়ই পরিবার এবং বন্ধু-বান্ধবের সাথে সময় কাটানোর বিশেষ মুহূর্তের ছবি বা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করে থাকেন তিনি। নেটদুনিয়ায় বড় সংখ্যক ফলোয়ার রয়েছে তাঁর। অনুরাগীদের মধ্যে অনেকেই আবার নাইসার বর্তমানের ছবির সাথে কাজলের ৫ বছর আগের ছবির মিল পেয়ে থাকে। এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে দুই বলি তারকার কন্যা দেখতে অত্যন্ত সুন্দরী এবং তাঁর লুকস দিয়ে তিনি সরাসরি বোল্ড আউট করে দিতে পারেন বলিউডের একাধিক তাবড় তাবড় অভিনেত্রীকে।

Advertisement

সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশিরভাগ সময় ওয়েস্টার্ন ড্রেস পরে ছবি দিয়ে ঝড় তোলেন নাইসা। তবে ওয়েস্টার্ন পোশাকের পাশাপাশি এথনিক পোশাকেও সমানভাবে স্বাচ্ছন্দ কাজল কন্যা। কিছুদিন আগে একটি দুধসাদা লেহেঙ্গা চোলি পরে টক অফ দা টাউন হয়ে উঠেছিলেন তিনি। মা বাবার মত নাইসাও বেশ ঘুরতে পছন্দ করেন। তাই মাঝেমাঝেই কাজল এবং অজয়ের সাথে তাদের প্রিয় কন্যা বিদেশে পৌঁছে যায়। প্রসঙ্গত, সিঙ্গাপুরের ইউনাইটেড ওয়ার্ল্ড কলেজ অফ সাউথইস্ট এশিয়ায় পড়াশোনা করেন নাইসা।

তবে জনপ্রিয়তা থাকার পাশাপাশি মাঝেমাঝেই সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রোলের শিকার হতে হয় কাজল কন্যাকে। এই প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে গিয়ে অজয় দেবগন বলেছিলেন যে ট্রোলাররা আমাকে বা কাজলকে কোনো বিষয় নিয়ে সমালোচনা করতেই পারে। কারণ আমরা অভিনেতা। তবে আমাদের মেয়ে হওয়ার জন্য নাইসার ট্রোল হওয়া মেনে নেওয়া যায় না। যাই হোক, এখনও অব্দি অজয় দেবগন এবং কাজল নিজেদের কন্যাকে বলি লাইমলাইট থেকে দূরেই রাখতে চান।

Related Articles

Back to top button