টলিউডবিনোদন

ভালোবাসার মানুষের কাছ থেকে মিষ্টি খেলেন অভিনেতা রাহুল

×
Advertisement

অভিনেতা অভিনেত্রীরা শুধুই কি পেশাদারি সম্পর্কে বিশ্বাসী? কেউ কি কারোর ভালো বন্ধু বা ভালো ভাই বা বোন হতে পারেনা। শুধু পর্দায় ভালো সম্পর্কের অধিকারী হয়? এই নিয়ে বেশিরভাগ সময়ই নানান বিতর্ক উঠে এসেছে। এমনকি একজন অভিনেতার সাথে অন্য অভিনেত্রীর মধ্যে থাকা নানান বিবাদ মান অভিমানের কথা দর্শকেরা জানতে পারেন৷ তবে অনেকে এদের বন্ডিং এর কথা জানতে পারেননা। অনেকে খবরের পাতার পেজ থ্রিয়ে চোখ রাখলে কিছু দৃষ্টান্ত মূলক সম্পর্কের কথা জানতে পারে।

Advertisement

কিন্তু এখন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সব সম্ভব। সেলিব্রেটিদের খুঁটনাটি সবই জানা যায়। এবার সোশ্যাল মিডিয়া সাক্ষী থাকলো এক সুন্দর সম্পর্কের। হ্যাঁ পেশাদারিত্ব সম্পর্কের উর্ধ্বে গিয়ে কখনো কখনো বন্ধুত্ব থেকে এক পরিবার হয়ে ওঠেন। অভিনেতা অভিনেত্রীদের মধ্যে কাজের মধ্যে প্রতিযোগিতা হামেশাই চলে৷ একে অপরকে পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা এই ধরনের সম্পর্কের বাইরে এই কঠিন সময়ে ব্যতিক্রমী মানুষ এবং সম্পর্ক দেখা গিয়েছে। যেমন অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত ও তাঁর নীলাঞ্জনা শর্মার সাথে অভিনেতা রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে সম্পর্ক।

রাহুল এবং যীশু সহ-অভিনেতা তা সকলেই জানেন তবে কি এটা জানেন কিযীশু রাহুলের শ্যালক হয়। হ্যাঁ কি করে ভাবছেন তো? রাখি পূর্ণিমা তিথিতে এদের সম্পর্কের কথা জানা গেল। শুভদিনে সামনে এলো এক সুন্দর ছবি। রবিবার সারা ভারতবাসী রাখী বন্ধন উৎসব উদযাপন করলেন। রাহুলও এই উৎসবে বাদ পড়েননি। রবিবার নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার পেজে একটি সুন্দর ছবি পোস্ট করেছিলেন যেখানে দেখা যাচ্ছে, রাহুলকে রাখি পড়িয়ে দিচ্ছেন নীলাঞ্জনা সেনগুপ্ত। নিজের ভাইয়ের মতো রাহুলকে ভালোবাসেন নীলাঞ্জনা। অর্থাৎ সেই অর্থে ভদেখতে গেলে যীশু সেনগুপ্ত হলেন রাহুলের শ্যালক।

Advertisement

নীলাঞ্জনার সঙ্গে একটি রাখীর এই সুন্দর মুহূর্তের ছবি পোস্ট করে রাহুল ক্যপাশানে লিখেছেন, ‘এই মানুষটিকে আমি খুব ভালোবাসি’, এই ছবিতে দেখা গেল দিদি ভাইক রাখি পড়ানোর পর তাকে মিষ্টি খাইয়ে দিচ্ছে। দিদি ভাইয়ের এই বন্ডিং খুব পছন্দ হয়েছে নেটিজেনদের। অনুগামীরা এই দিদি ভাইয়ের জুটিকে ভালোবাসা জানিয়েছেন। আগে এবং পরে এবং এখনো একসঙ্গে একাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন রাহুল এবং যীশু। সহকর্মী বা সহ-অভিনেতা হিসেবে তাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সবসময় মধুর। তবে এবার আর বন্ধুত্বপূর্ণ নয় বরং এরা এখন পারিবারিক বন্ধুও বটে।

Related Articles

Back to top button