বাংলা সিরিয়ালবিনোদন

প্রয়াত অভিষেক চট্টোপাধ্যায়, খরকুটোতে আর দেখা মিলবে না গুনগুনের বাবার

×
Advertisement

বুধবার রাত ১’টার সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন অভিষেক চ্যাটার্জী। টলিউড জগতের অত্যন্ত পরিচিত একজন অভিনেতা তিনি। তবে বর্তমানে বড়পর্দার তুলনায় বেশিরভাগ ছোটপর্দাতেই দাপট ছিল তার। বর্তমানে স্টার জলসার খরকুটো ধারাবাহিকে গুনগুনের বাবা কৌশিক বাবুর চরিত্রে অভিনয় করছিলেন তিনি। বুধবার কাজ করতে করতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন অভিনেতা। এদিন রাতেই সকলকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন।

Advertisement

তার প্রয়াণে গোটা টলিউড ইন্ডাস্ট্রি রীতিমতো শোকোস্তব্ধ। তার মৃত্যু সংবাদ রীতিমত অবাক করেছে তার কলাকুশলীদের। এই গোটা বিষয়টি অবিশ্বাস্য লাগছে সকলের কাছে। ইতিমধ্যেই তার বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছেন তার ঘনিষ্ঠ বন্ধুমহল ও পরিবারের সদস্যরা। ১৯৮৬’তে ‘পথভোলা’ ছবি দিয়েই শুরু করেছিলেন অভিনেতা। ২০২২’এ এসে মাত্র ৫৭ বছর বয়সে অভিনয় জীবনে তার পথ চলা থেমে গেল।

তার কাজের তালিকা রইল এক ঝলকে:

Advertisement

• ১৯৮৬ সালে তরুণ মজুমদার পরিচালিত ‘পথভোলা’ ছবি দিয়ে নিজের অভিনয় জীবন শুরু করেছিলেন অভিনেতা। সন্ধ্যা রায়, উৎপল দত্ত, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, তাপস পালের মতো একাধিক অভিনেতার সাথে কাজ করেছিলেন তিনি। সেই শুরু তারপর থেকে তাকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

• অভিনয়ের দিক দিয়ে প্রথম থেকেই নজর কেড়েছিলেন তিনি। ১৯৮৮-৯০’এর মধ্যে মোট আটটি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছিলেন অভিষেক চ্যাটার্জী। এই আটটি ছবির মধ্যে ‘অমর প্রেম’, ‘ওরা চারজন’, ‘তুফান’, ‘পাপী’ অন্যতম।

• এরপরের দশ বছর অর্থাৎ ১৯৯০-২০০০ পর্যন্ত চুটিয়ে অভিনয় করেছিলেন তিনি। নয় নয় করে ৫০’টি ছবিতে অভিনয় করে ফেলেছিলেন এই ১০ বছরে। ‘মায়ের আশীর্বাদ’, ‘মেজ বৌ’, ‘সিঁথির সিঁদুর’, ‘চৌধুরী পরিবার’, ‘বাড়িওয়ালি’-র মতো একাধিক জনপ্রিয় ছবি। এরপর মুক্তিপ্রাপ্ত ‘শ্রীমতি ভয়ঙ্করী’ বেশ সাফল্য পেয়েছিল দর্শকদের মাঝে। তবে দুর্ভাগ্যবশত এরপর থেকেই টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের জায়গা ধীরে ধীরে হারাতে শুরু করেন অভিনেতা। হিরোর বদলে তার কাছে আসতে শুরু করে পার্শ্বচরিত্রের অফার। ২০০১-২০১১ সালের মধ্যে ঘটেছিল এই ঘটনাটি। সেইসময় এক সাক্ষাৎকারে অভিনেতা জানিয়েছিলেন, কিভাবে তাকে ষড়যন্ত্র করে টলিউড ইন্ডাস্ট্রি থেকে বের করে দেওয়ার চক্রান্ত চলছে। সেইসময় তার বিস্ফোরক মন্তব্যে নড়েচড়ে বসেছিলেন টলিউডের একাধিক মাথারা।

• ২০১২ সাল থেকেই ছোটপর্দায় অভিনয় শুরু করে দিয়েছিলেন তিনি। ‘টাপুর টুপুর’ ধারাবাহিক দিয়ে শুরু করেছিলেন তিনি। এরপর ‘আঁচল’, ‘ইচ্ছে নদী’, ‘অন্দরমহল’, ‘চোখের তারা তুই’, ‘ফাগুন বউ’, ‘কুসুম দোলা’ মতো একাধিক জনপ্রিয় ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন তিনি।

এরপর ২০১৯-২০২২’এর মধ্যে এরপর ‘খরকুটো’ ও ‘মোহর’এ অভিনয় করা শুরু করেছিলেন। কাজ শুরু করলেও শেষ করা হলো না তার। শোনা গেছে, বর্তমানে নিয়মিত তিনি ‘ইস্মার্ট জুটি’র সেটে যাচ্ছিলেন। সেখানেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। কয়েকদিন ধরেই পায়ের শিরায় ব্যথা হচ্ছিল অভিনেতার। তবে শেষপর্যন্ত শেষ রক্ষা হল না। সকলকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন অভিনেতা।

Related Articles

Back to top button