Today Trending Newsদেশনিউজ

রাত ৯ টায় ৯ মিনিট, ‘আলো নেভান প্রদীপ জ্বালান’

×
Advertisement

শুক্রবার একটি ভিডিও বার্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতির কাছে একটি আবেদন জানিয়েছিলেন যে, ‘৫ই এপ্রিল, রবিবার রাত ৯ টায়, আমি আপনাদের থেকে ৯ মিনিট চাইছি। আপনার বাড়ির সমস্ত বাতি নিভিয়ে দিন এবং আপনার দরজায় বা ব্যালকনিতে মোমবাতি, প্রদীপ বা মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইট জ্বেলে ৯ মিনিট দাঁড়ান।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের এই লকডাউনের সময় দেখিয়ে দিতে হবে আমরা এই কঠিন পরিস্থিতিতে সকলে একসাথে আছি।’ আজ সেই দিন, আজ রাত ৯ টার প্রস্তুতি ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে দেশ জুড়ে।

Advertisement

আজ সকালেই প্রধানমন্ত্রী এই বিষয়ে একটি টুইট করেন। সেখানে তিনি লেখেন, ‘#রাত 9 টা 9 মিনিট’। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর এই ৯ মিনিট লাইট বন্ধের ঘোষণার পর থেকেই বিদ্যুৎ কর্তাদের মনে জমা হয়েছে আশঙ্কার মেঘ। কেন্দ্রীয় এবং রাজ্য বিদ্যুৎ কর্তাদের মতে রবিবার কোটি কোটি বাড়িতে হঠাৎ লাইট বন্ধ করে আবার জ্বালালে ধাক্কা খেতে পারে পাওয়ার গ্রিড। আচমকাই গোটা দেশে বাড়ির আলো নিভিয়ে ফের ফেরানো হলে ধাক্কা খেতে পারে পাওয়ার গ্রিড।

যদিও কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ‘টিভি, ফ্যান, রেফ্রিজারেটর, শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের মতো স্ট্রিট লাইট, কম্পিউটার বা যন্ত্রপাতি বন্ধ করার কোনও কথা বলা হয়নি। তাই বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থায় কোনো সমস্যা হবেনা।’ সরকারের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘শুধুমাত্র লাইট বন্ধ রাখতে হবে। হাসপাতাল ও জনসাধারণের ইউটিলিটি, পৌরসভা পরিষেবা, অফিস, থানা, উৎপাদন ব্যবস্থা ইত্যাদি প্রয়োজনীয় পরিষেবাগুলি বজায় থাকবে।’

Advertisement

প্ৰধানমন্ত্রীর এই আহবানকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি কংগ্রেস। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী টুইট করেছেন, “ভারত কোভিড-১৯ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করার পক্ষে পর্যাপ্ত পরীক্ষা করছে না। হাততালি ও আকাশে জ্বলন্ত মশাল তৈরি করার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান হবে না।’ তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র এবং কংগ্রেস নেতা শশী থারুরও প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন।

তবে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডি আবার প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘আগামীকাল রাত ৯টাই ৯ মিনিটের জন্য আমি অন্ধ্রপ্রদেশের প্রত্যেককে আশার আলো প্রজ্বলিত করার জন্য অনুরোধ করছি। আলোর অসীম শক্তিতে আমাদের উপরে ছড়িয়ে থাকা অন্ধকারকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারবো। আমরা সকলে একত্রে এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসবো।’ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে আবার টুইটও করেছেন।

Related Articles

Back to top button