×
ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

এই পুরনো ১ টাকার নোট আপনাকে করে দিতে পারে কোটিপতি, জানুন কীভাবে

একটি পুরনো ১ টাকার নোট যার একটি বিশেষত্ব থাকার জন্য সেটি হয়ে ওঠে স্পেশাল

Advertisement

প্রায় প্রত্যেকের বাড়িতেই একাধিক সংখ্যায় ১ টাকা, ৫ টাকা এবং ১০ টাকার নোট তো থাকবেই। এই ধরনের নোট নিয়ে যেমন ফাটা ছেড়ার তেমন কোনো সমস্যা হয় না, তেমনি কিন্তু এই ধরনের নোট সবথেকে সহজলভ্য এবং মাঝে মধ্যে সবথেকে কার্যকরী হয়ে ওঠে। এই ছোট অংকের নোটগুলি নিয়ে তেমন কেউ মাথা ঘামাতে চান না। কিন্তু দেখতে গেলে, এই ধরনের নোট নিয়ে কিন্তু অবশ্যই চিন্তা রাখা উচিত। যারা এই ধরনের নোট নিয়ে চিন্তা রাখেন, তারা সকলেই জানেন যদি এই ধরনের সিরিজের কিছু বিরল ধরনের নোট আপনার হাতে চলে আসে তাহলে কিন্তু আপনি হয়ে যেতে পারেন মুহূর্তের মধ্যে কোটিপতি। আমরা এই নিয়েই আজকে কথা বলব।

Advertisement

আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে এই ধরনের নোট বিক্রি করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। আপনাকে জানিয়ে রাখি অবশ্যই আপনার কাছে ৭৮৬ সিরিজের ১,৫,১০,২০,৫০,১০০,৫০০ ও ২০০০ টাকার নোট থাকতে হবে। আপনি নিজের পছন্দসই দামে এই ধরনের ওয়েবসাইটে আপনার সঞ্চিত বিরল থেকে বিরলতর নোট বিক্রি করতে পারবেন। এই সমস্ত ধরনের নোট অত্যন্ত চড়া দামে বিভিন্ন অনলাইন নিলাম মার্কেটে উপলব্ধ। এই মুহূর্তে বেশকিছু এমন ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে অনলাইন নিলামি হয়। সেরকম ভাবেই নোটের জন্য এরকম কিছু বিশেষ ব্যাকসাইড রয়েছে।

আসলে আন্তরাষ্ট্রীয় বাজারে ভারতের পুরনো এবং স্পেশাল নোটের একটা বিশেষ দাম রয়েছে। যারা পুরনো নোট কিনতে এবং সংগ্রহ করতে পছন্দ করেন তাদের জন্য এই সমস্ত নোট অত্যন্ত মূল্যবান। সেরকমই যদি আপনার কাছে কিছু পুরনো এক টাকার নোট থাকে তাহলে আপনি হয়ে উঠতে পারবেন কোটিপতি। তবে হ্যাঁ অবশ্যই এই ধরনের নোট থেকে টাকা পেতে হলে নোটে কিছু বিশেষত্ব থাকতে হবে। আপনাদের জানিয়ে রাখি, যদি আপনার কাছে ১৯৫৭ সালের আর বি আই গভর্নর এইচ এম প্যাটেলের সই করা একটি ১ টাকার নোট থাকে এবং যার সিরিয়াল নম্বর ১২৩৪৫৬ হয়, তাহলে আপনি সেই নোট থেকে কামাতে পারবেন ৪৫,০০০ টাকা পর্যন্ত। কিন্তু কিভাবে এই টাকা রোজগার করবেন? চলুন জেনে নেওয়া যাক।

Advertisement

কিভাবে বিক্রি করবেন?

১. যদি আপনার কাছে পুরনো নোট থাকে এবং আপনি সেটিকে বিক্রি করতে চান তাহলে প্রথমে ইবে ওয়েবসাইটে চলে যান।

২. তারপরে সেখানে হোমপেজে ক্লিক করে ইউজার রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন।

৩. নিজেকে সেলার বা বিক্রেতা হিসেবে রেজিস্টার করবেন এবং তারপর শুরু করবেন নিজের প্রডাক্ট লিস্ট করা।

৪. এরপর সেই বিশেষ নোটের ছবি তুলে ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। সঠিকভাবে এই নোটের ছবি আপলোড করবেন।

৫. এরপরে, ইবে আপনার সেই বিজ্ঞাপন পুরনো নোট এবং কয়েন সংগ্রহকারী মানুষদের কাছে পৌঁছে দেবে।

৬. এরপর যে মানুষটি আপনার সেই নোট কিনতে চাইবেন তিনি নিজেই আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন এবং আপনার সঙ্গে ডিল ফাইনাল করতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button