নিউজ

মুখেই হুশিয়ারী, ভারতের ভয়ে কী করল পাকিস্তান, দেখুন

রাজীব ঘোষ : কাশ্মীরে ভারত সরকার ৩৭০ ধারা বিলোপ করার পর পাকিস্তান হুশিয়ারী দিয়ে এসেছে নয়াদিল্লিকে।পাকিস্তানের হুশিয়ারী যে শুধু মুখেই সেটা তাদের সিদ্ধান্তে প্রমাণ হয়ে গিয়েছে।ভারতের হামলার আশঙ্কায় নিজেদের আকাশসীমা আংশিক বন্ধ করে দিলো ইসলামাবাদ।পাকিস্তানের আকাশপথ আগামী ৫ ই সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আংশিক বন্ধ থাকবে।পুলওয়ামায় ভারতের নিরাপত্তা বাহিনীর উপর আক্রমণের পর ভারতীয় সেনাবাহিনী পাকিস্তানে ঢুকে এয়ারস্ট্রাইক করে।এরপর ওই দেশে আকাশপথ সম্পূর্ণ ভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।তার কিছুদিন পর আকাশপথ খুললেও সেটা ছিল আংশিক।গত মাসে নিষেধাজ্ঞা সম্পূর্ণ ভাবে উঠে গিয়েছিল।পাকিস্তানের অসামরিক বিমানমন্ত্রক গত ১৫ ই জুলাই নির্দেশিকা দিয়ে জানায়, পাকিস্তানের আকাশপথ সব ধরনের বিমানের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে।পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জাতীয় নিরাপত্তা কমিটির বৈঠকে বসেন।সেই বৈঠক থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে,

  • ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক কমানো হবে।
  • ভারতের সঙ্গে সমস্ত রকম বানিজ্যিক সম্পর্ক বাতিল।
  • ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সমঝোতা নিয়ে পর্যালোচনা হবে।
  • পাকিস্তান রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জম্মু-কাশ্মীরের বিষয়টি জানাবে।

বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রে থাকা পাক কূটনীতিবিদদের কাশ্মীরে ভারতের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলতে হবে।
১৪ ই আগস্ট পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস।পাকিস্তান ওই দিনটি কাশ্মীরিদের সমর্পণ করবে।পরের দিন ভারতের স্বাধীনতা দিবস কালো দিন হিসেবে পালিত হবে পাকিস্তানে।
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সেনাবাহিনীকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।পাকিস্তান এরপর জানিয়ে দেয়,ভারতে নতুন রাষ্ট্রদূত মইন-উল-হককে তারা পাঠাচ্ছে না।পাকিস্তানে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত অজয় বিসারিয়াকে দেশ ছাড়তে বলা হয়েছে।মোদী সরকার জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার পর ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা তৈরী হয়েছে।পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভারতকে রাষ্ট্রসংঘে টেনে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন। কিন্তু এয়ারস্ট্রাইকের আশঙ্কায় নিজেদের আকাশপথ বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তান।পাকিস্তানের এই সিদ্ধান্তে বোঝা যাচ্ছে, পাকিস্তান শুধু মুখেই মারিতং-।

Related Articles

Back to top button