জীবনযাপন

বৃষ্টির দিনে ঠিক কেমন ধরনের পোষাক পড়লে আপনি স্বস্তি পাবেন? অবশ্যই তা জেনেনিন

Advertisement

দেবপ্রিয়া সরকার : বৃষ্টির দিনে ঠিক কেমন ধরনের পোশাক পড়া উচিত তা নিয়ে ভেবে কম-বেশী সকলেই প্রায় দিশেহারা। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে কর্মীজীবী বা পড়ুয়া সকলকেই বাইরে যেতে হয়। অন্যান্য সময় সমস্যা না হলেও, এই বর্ষার দিনে বাইরে বেরোনোর সময় কোন ধরনের পোশাকে স্বস্তি মিলবে তা নিয়ে বিরম্বনা সকলের মধ্যেই। কখনো পরিষ্কার আকাশ আবার হঠাৎ করেই ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি, সব দিক চিন্তা ভাবনা করেই চলে কাপড় বাছাই। আর এই কাপড় বাছাই নিত্যদিনের চিন্তা ও ঝামেলার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তবে একটু ভেবেচিন্তে, বুদ্ধি করে কাপড় বাছাই করলে এই ঝামেলা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া যেতে পারে।

তবে আসুন জেনে নিন ঠিক কেমন পোশাক বৃষ্টির দিনে আপনাকে স্বস্তি দেবে-

১. বর্ষায় সুতির কাপড় পরা একদমই মানানসই নয়। সিল্ক, হাফসিল্ক, জর্জেট, আপনাকে বৃষ্টির দিনে একমাত্র স্বস্তি দেবে। এই ধরনের কাপড়ের পোশাক ভিজলেও তাড়াতাড়ি শুকিয়ে যায়। এছাড়া কোনরকম কাদার দাগ লাগলেও তা সহজে তোলা যায়।

২. বৃষ্টির দিনে সুতির কাপড় পরিহার করাই ভালো। কারণ কাদা বা অন্য কিছু দাগ সুতির কাপড়ে ছোট ছোট হয়ে এমন ভাবে শুকিয়ে যায় যা তোলা সম্ভব হয় না। এর ফলে আপনার কাপড় সম্পূর্ণ নষ্ট হতে পারে।

৩. স্কিন টাইট যে কোন ধরনের পোশাক এড়িয়ে চলাই ভালো। কারণ বর্ষায় এগুলো ভিজে গেলে তা সেই মুহুর্তে আপনার শারীরিক অস্বস্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

৪. বর্ষায় শাড়ি পরলেও তা যেন গাঢ় রঙের হয় এবং সিল্ক বা জর্জেটের হয়। এতে শাড়ি ভিজে গেলে তা সহজে শুকিয়ে যাবে এবং আপনার গায়ের সঙ্গে লেগে থাকবে না, ফলে চলাচলের সুবিধা হবে।

৫. বর্ষা কোন রকমের লঙ্ ড্রেস বা সালোয়ার কামিজ না পড়াই ভালো। কারণ এইসময় রাস্তাঘাটে ভিজে কাদা হয়ে থাকে, ফলে এই সমস্ত পোষাক গুলোতে কাদা লাগায় আশঙ্কা অনেকটাই।

৬. বর্ষায় যদি কোন অনুষ্ঠানে যাওয়ার থাকে তবে সে ক্ষেত্রে উজ্জ্বল ধরনের পোশাক বাছাই করাই শ্রেষ্ঠ। কারণ এইসময় আবহাওয়ার কারণেই চারিদিক অন্ধকারময় থাকে। তাই এমন পোশাক বাছাই করুন যা আপনাকে উজ্জল দেখাবে।

৭. বর্ষাকালের আবহাওয়ায় বেশি আদ্রতা ও স্যাঁতস্যাঁতে হওয়ার কারণে কোনো পোশাক সহজে শুকোতে চায় না। তাই এমন পোশাক বাছাই করুন যা সহজেই শুকিয়ে যাবে।

৮. বৃষ্টির দিনে সবসময় ছাতা ও রেইনকোট সঙ্গে রাখুন। এগুলি রাস্তাঘাটে হঠাৎ বৃষ্টির হাত থেকে আপনাকে রক্ষা করবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button