নিউজ

এই জেলা দুটি বাংলায় থাকবে তো? আশঙ্কা বিরোধীদের

Advertisement

কাশ্মীরের আর্টিকল 370 বিলোপ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে কাশ্মীরকে বিভক্ত করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ দুইটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মধ্যে জম্মু-কাশ্মীরে বিধানসভা থাকবে।লাদাখ বিধানসভা হীন কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হয়েছে।ইতিমধ্যে বেশ কিছু বিরোধী রাজনৈতিক দল এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দেশের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোকে ধ্বংস করছে বিজেপির সরকার।কংগ্রেসের নেতা সোমেন মিত্র বলেন, সাংবিধানিক ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে কেন্দ্রীয় সরকার দেশকে ভেঙে দিতে চাইছে।কাশ্মীরের মতো আগামী দিনে পশ্চিমবঙ্গেও মোদী সরকার ক্ষমতা প্রয়োগ করে রাজ‍্যের দুই জেলা দার্জিলিং এবং কোচবিহারকে ভেঙে দিতে পারে।যেভাবে কাশ্মীর পুনর্গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী ও শাহ ঠিক সেভাবেই বাংলাকে ভাঙতে পারে।

সোমেন আরো বলেন, নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ আগামী দিনে এই রাজ‍্যের মধ্যে অবস্হিত দার্জিলিং এবং কোচবিহারকে বাংলা থেকে আলাদা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে।কংগ্রেসের পাশাপাশি সিপিএমের পক্ষ থেকেও এই একই আশঙ্কা প্রকাশ করে বলা হয়েছে, নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহের নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার সাংবিধানিক ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোটা ভেঙে দিতে চাইছে।এরাজ‍্য থেকে দার্জিলিং ও কোচবিহারকে কেন্দ্রীয় সরকার ক্ষমতা প্রয়োগ করে বাংলা থেকে আলাদা করে দিতে পারে।

তাই সিপিএম এবং কংগ্রেস কাশ্মীর থেকে 370 ধারা বিলোপের প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সেখানে লেফটেন্যান্ট গভর্নর বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ।একে রক্ষা করতেই হবে।লোকসভায় তিনি একথা জানান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button