টলিউডবিনোদন

Srabanti-Roshan: চোর, মোটা, সঙ্গমে অক্ষম বলে কেন আক্রমণ করা হচ্ছে, শ্রাবন্তীকে আক্রমণ রোশনের

টলিউডের হটটপিক এখন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় আর রোশন সিং। হঠাৎ করে সকলকে চমকে দিয়ে ২০১৯-এর জুন মাসে গোপনে পঞ্জাবের এক গুরুদ্বারে বিয়ে করেছিলেন অভিনেত্রী। প্রথম প্রথম তৃতীয় বরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ছবিতে ভরা থাকত অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়াল। তৃতীয় বিয়ে নিয়ে নানান ভাবে ট্রোলড হতে হয় অভিনেত্রীকে। তবে কোনোদিন তা পাত্তা দেননি অভিনেত্রী। গত বছর অক্টোবর থেকে আলাদা থাকছেন শ্রাবন্তী আর রোশন।

মাত্র ১৭ মাস সংসার করেছেন রোশন-শ্রাবন্তী। প্রায় ১ বছর যাবত এক ছাদের তলাতেও একে ওপরের থেকে আলাদা থাকার মাঝে নিজের স্ত্রীকে নিজের কাছে ফিরে পেতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন রোশন। মনের দূরত্ব তৈরি হয়েছে অনেক আগে। রোশন এই বিয়ে টিকিয়ে রাখতে চাইলেও এবার কাগজে কলমে তিন নম্বর বিয়ে পাট চুকিয়ে ফেলতে চান শ্রাবন্তী। কোনো ভাবে থামছে না শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ও রোশন সিংয়ের দাম্পত্য কলহ। গত ১৬ সেপ্টেম্বর আলিপুর আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেছেন অভিনেত্রী তবে রোশন জানালেন, ১২ দিন পরেও তিনি কোনও ডিভোর্স নোটিস পাননি।

এক সাক্ষাৎকারে শ্রাবন্তীর তিন নম্বর স্বামী জানিয়েছেন, নায়িকার অনেক বন্ধুর সঙ্গেই তাঁর যোগযোগ এখনো রয়েছে। আর সেই মারফত থেকেই তিনি জানতে পেরেছেন ঘনিষ্ঠমহলে রোশনকে নিয়ে নানান রকম বিভ্রান্তিকর মন্তব্য করে চলেছেন নায়িকা। রোশন জানান, শ্রাবন্তী জানিয়েছেন, রোশন মোটা। ওজন বেশি হওয়ার জন্য তিনি নাকি সঙ্গমে সক্রিয় নন’। এই ধরণের কুরুচিকর মন্তব্য শুনে তিনি মর্মাহত। রোশনের কথায় শ্রাবন্তী নিজে সরাসরি একথা তাঁকে না বললেও, যাঁদের মুখে তিনি একথা শুনেছেন তাঁরা সকলেই তাঁর বিশ্বস্ত বন্ধু। 

রোশন এই ধরণের বিষ্ফোরক মন্তব্য শুনে মারাত্মক বিস্মিত। কেন তাঁকে এমন প্রশ্নবাণে বিদ্ধ হতে হবে? রোশন আরো জানান, তাঁকে চোর অপবাদ দিয়েছেন অভিনেত্রী। বলা হয়েছে, তিনি নাকি শ্রাবন্তীর থেকে ১ কোটি টাকা নিয়ে চলে গিয়েছেন। এমনকি রোশনের প্রাক্তন প্রেমিকাকে ফোন করে শ্রাবন্তী বিবাহবিচ্ছেদের কথা বলা হচ্ছে। এই সব কথার অর্থ তিনি খুঁজে পাচ্ছেন না রোশন। রোশন অকপটে বলেন, অভিনেত্রীর রাজনৈতিক ক্ষমতা বেশি। সে চাইলে তাঁর সঙ্গে নাকি যা খুশি করতে পারে। তাঁর পরিবারকেও টেনে এনে অসম্মান করা হচ্ছে।রোশন জানান, তাঁর বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ থাকলে শ্রাবন্তী যেন তা আদালতে করেন। এইভাবে চারিদিকে তাঁর নামে কলুষিত করবার কোনও প্রয়োজন নেই।  

Related Articles

Back to top button