দেশনিউজ

হাথরস কান্ডে সিবিআই তদন্তের আর্জি যোগী সরকারের

Advertisement

উত্তরপ্রদেশ: চাপের মুখেই কি নতি স্বীকার করলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ? এমন প্রশ্নই এখন রাজনৈতিক মহলে ঘুরপাক খাচ্ছে। কারণ, প্রথম থেকে হাথরস কান্ডে হাত-পা গুটিয়ে বসে থাকা উত্তরপ্রদেশ সরকার কার্যত নড়েচড়ে বসেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হস্তক্ষেপের পর ফার্স্টট্রাক কোর্টে এই মামলার বিচারের আশ্বাস দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তারপর শুক্রবার বিকেলে ডিএম প্রবীন কুমার এবং এসপি বিক্রম বীরের বিরুদ্ধে রিপোর্ট তলব করেছিল উত্তরপ্রদেশ সরকার। জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় তাঁদের কোনও গাফিলতি হয়েছে কিনা, তা জানতে চেয়েছে যোগী আদিত্যনাথের সরকার। আর এদিন রাতেই এসপি বিক্রান্ত বীর, সিও রাম শাবাদ, ইন্সপেক্টর দীনেশ কুমার বর্মা, এসআই জগবীর সিং এবং হেড কনস্টেবল মহেশ পালকে সাসপেন্ড করার নির্দেশ দিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। এমনকি তাঁদের নারকো টেস্ট করারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। আর এবার হাথরস কান্ড নিয়ে সিবিআই তদন্তের আর্জি জানাল যোগী সরকার।

জানা গিয়েছে, আজ, রবিবার প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে এই বিষয়ে সবুজ সংকেত মিলতে পারে। বেগতিক বুঝে শনিবার বিকেলে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন যোগী আদিত্যনাথ। তার আগে ধর্ষিতা দলিত কন্যার পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন ডিজিপি এইচসি অস্তি এবং স্বরাস্ট্রসচিব অবিনাশ অতশী। তাদের সামনে ক্ষোভ উগরে দেন মৃতার পরিবার। খবর পৌঁছয় যোগীর টেবিলে। তার ওপর রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরার হাথরসে যাওয়ার ঘটনা যথেষ্ঠ চাপে রেখেছে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে, তা বলাই যায়।

Tags

Related Articles

Back to top button