জ্যোতিষমাইথোলজি

নিজের খারাপ ভাগ্য নিয়ে চিন্তিত, তাহলে তুলসীর গাছের এই টোটকা আপনার কাজে আসবে

×
Advertisement

হিন্দু ধর্মে মা তুলসীর বিশেষ বর্ণনা করা হয়েছে, গরুর পুরাণে বিষ্ণু দেব ও মা তুলসীর অনেক মহত্বের কথা বর্ণিত আছে। তুলসীকে মা লক্ষীর অবতার মানা হয়। তাই উনি বিষ্ণু দেবের খুব প্রিয়। তুলসী দেবীকে প্রসন্ন রাখলে ধনের অভাব হয় না এবং বিপদ থেকেও রক্ষা পাওয়া যায়। তাই নিজের ঘুমিয়ে থাকা ভাগ্যকে জাগতে তুলসী মায়ের মহত্বের কথা জানুন ও প্রয়োগ করুন।

Advertisements
Advertisement

বাস্তু মতে প্রতি হিন্দু বাড়ির উঠোনে তুলসী বেদী থাকা উচিত। তুলসী গাছকে হিন্দু ধর্মে পবিত্র বলে মনে করা হয়। কথিত আছে যে ঘরে তুলসী গাছ থাকে, সেখানে সর্বদা সুখ-সমৃদ্ধি থাকে। নিয়মিত তুলসী গাছের পূজা করলে মা লক্ষ্মীর সাথে ভগবান বিষ্ণুর আশীর্বাদও পাওয়া যায়। অন্যদিকে, বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে, বাড়িতে তুলসী গাছ উপস্থিত থাকে বাড়িতে ইতিবাচক শক্তির বাস হয় ও অপশক্তি আসতে পারে না।

Advertisements

জ্যোতিষ ও বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে, প্রতিদিন তুলসী গাছের পুজো করা শুভ বলে মনে করা হয়। জ্যোতিষশাস্ত্রে ভাগ্য উদয়ের জন্যে অনেক প্রতিকারের কথা বলা হয়েছে। এই প্রতিকারগুলির মধ্যে একটি হল তুলসীর জল। বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে, এই কাজ নিয়ম মেনে করলে একজন ব্যক্তি অর্থ সংক্রান্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পান এবং বাড়িতে সুখ ও সমৃদ্ধি নিয়ে বাস করতে পারে।

Advertisements
Advertisement

তুলসীর জলের এই প্রতিকারগুলি খুবই অলৌকিক জানুন এর গুণাবলীর কিছু কথা:-

১) একটি তামা বা পিতলের পাত্রে জলে কয়েকটি তুলসী পাতা রাখুন। এতে পদ্মের জল পবিত্র ও বিশুদ্ধ হবে। এতে করে ঘরে লক্ষ্মীর অধিবাস হয়।

২) বাস্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, তুলসী সারারাত জলে ভিজিয়ে রাখুন। এর পরে, এই বিশুদ্ধ জলটি সকালে সারা ঘরে ছিটিয়ে দিন। বাড়ির প্রতিটি কোণে এই জল ছিটিয়ে দিন। এটি করলে ঘরে নেতিবাচক শক্তি বাস করায় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়।

২) ভগবান বিষ্ণুর কাছেও তুলসী খুব প্রিয়। মর্ষ মাস ভগবান শ্রীকৃষ্ণের অত্যন্ত প্রিয়। আর শ্রী কৃষ্ণ হলেন ভগবান বিষ্ণুর অবতার। এমন অবস্থায় এই মাসে তুলসী জলে স্নান করলে শ্রীকৃষ্ণের আশীর্বাদ লাভ হয়। একটি তামা ও পিতলের পাত্রে সামান্য জলে তুলসী রাখুন। এরপর এই জল দিয়ে ঘরের বাল গোপালকে স্নান করুন। এতে বাল গোপাল খুব খুশি হয়। এর ফলে আপনাকে আশীর্বাদ করেন।

৩) ব্যবসা-বাণিজ্যে অপরিসীম অগ্রগতি পেতে তুলসী জল খুবই উপকারী। এর জন্য জলে তুলসী পাতা দিয়ে ২-৩ দিন রেখে দিন। তারপর এই জল নিজের গায়ে ছিটিয়ে দিন। এর সাথে কারখানা, দোকান, অফিস, কর্মস্থল ইত্যাদিতে ছিটিয়ে দিন। এতে নেতিবাচক শক্তি দূর হয়।

৪) সুস্থ থাকতে তুলসীর জল ব্যবহার করা হয়। বাড়ির কোনো সদস্য বেশির ভাগ অসুস্থ থাকলে সকাল-সন্ধ্যা পূজার পর তার ওপর তুলসী জল ছিটিয়ে দিন। এছাড়াও, তুলসী জল সিদ্ধ করে সেই ব্যক্তিকে দিন।

এখানে প্রদত্ত তথ্য শুধুমাত্র অনুমান এবং তথ্যের উপর ভিত্তি করে। এখানে উল্লেখ করা জরুরী যে ভারত বার্তা যে কোনো ধরনের বিশ্বাস, তথ্যকে সমর্থন করে না। কোন তথ্য বা অনুমান প্রয়োগ করার আগে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করুন।

Related Articles

Back to top button