বাংলা সিরিয়ালবিনোদন

মন ভালো নেই শ্যামার! প্রিয় মানুষকে হারালেন অভিনেত্রী তিয়াসা

×
Advertisement

করোনার কড়াল গ্রাস এখন বিনোদন জগতে। নিত্যদিনই কোনো তারকা নিজের প্রিয়জনদের হারাচ্ছেন। এবার এই তালিকায় যোগ দিলেন কৃষ্ণকলি ধারাবাহিকের সকলের প্রিয় শ্যামা। বড্ডো মন খারাপ শ্যামার। এই লকডাউনের মাঝেই নিজের অত্যন্ত কাছের মানুষকে চিরতরে হারালেন তিনি। অভিনেত্রীর দাদু প্রয়াত হয়েছেন।কাছের মানুষকে হারিয়ে শোকাচ্ছন্ন এখন শ্যামা ওরফে তিয়াসা রায়।

Advertisement

গোবরডাঙায় তিয়াসার মামারবাড়ি, লকডাউনের শ্যুটিং থেকে ছুটি পেতেই এই দুঃসংবাদ পেয়ে এই গ্রামের বাড়িতেই চলে গিয়েছেন তিয়াসা। এই সময়ে মামার বাড়ির সকলের পাশে থাকছেন তিনি। তিয়াসার শৈশব কেটেছে এই গোবরডাঙার মামার বাড়িতেই। তাই মামার বাড়ির সকলের খুব প্রিয় ও মনের কাছাকাছি অভিনেত্রী। এই দাদুই ছিলেন অভিনেত্রীর বড্ডো প্রিয় মানুষ। বাবার মতো দাদুকে শ্রদ্ধা করতেন অভিনেত্রী। এইভাবে গুরুজনকে হারিয়ে যাওয়াটা কিছুতেই মানতে পারছেন না অভিনেত্রী।

তবে ধারাবাহিকের শ্যুটিং বন্ধ থাকায় এই দুর্দিনে প্রিয়জনদের মাঝে কাটাতে পেরে কিছুটা শান্তিতে আছেন তিয়াসা। সম্প্রতি এই গ্রামের বাড়িতেই দাদুর জন্মদিন উদযাপন করেছিলেন অভিনেত্রী। তিয়াসা ও অন্যান ভাই বোনেরা মিলে ঘরোয়া আমেজেই নাদাদুর জন্মদিন সেলিব্রেট করেছিলেন। আর কিছুদিনের মধ্যে দাদু চলে গেলেন। দাদুকে হারিয়ে একেবারে অভিনেত্রীর মন ভালো নেই।

Advertisement

তাও করোনার এই কঠিন সময়ে নিজের সকল অনুরাগীদের মনশক্ত রাখার বার্তা দিলেন। সকলকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিলেন। তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘সকলে বাড়িতে থাকুন, ভালো করে খাওয়া-দাওয়া করুন, আর রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা যাতে বাড়ে এমন সব খাবার খাওয়া দাওয়া করুন। সকলে নিজেদের প্রিয়জনদের সঙ্গে সময় কাটান, আর তাঁদেরও মন ভাল রাখার চেষ্টা করুন’।

উল্লেখ্য ১৬ই মে থেকে রাজ্য জুড়ে লকডাউন হওয়াতে ফের শ্যুটিং বন্ধ পুরোপুরি। ১৫ই মের পর থেকে বন্ধ শ্যুটিং। এর আগে কৃষ্ণকলির দিন পাঁচেকের এপিসোড শ্যুট করে ব্যাঙ্কিং করা ছিল। তাই এই সপ্তাহের কয়েকটা দিন এই নতুন এপিসোড দেখতে পাবেন দর্শক। তবে লকডাউন শেষ হয়ে গেলে ফের নতুন ভাবে ফিরে আসবেন টিম কৃষ্ণকলি।

Related Articles

Back to top button