টলিউডবিনোদন

Sreelekha Mitra:‘আমার দেখা সেরা সুন্দরী!’ প্রিয় অভিনেত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ শ্রীলেখা মিত্র

×
Advertisement

শ্রীলেখা মিত্র টলিউডের অত্যন্ত জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন। বহু বছর ধরে টেলিভিশন এবং সিনেমাতে দাপটের সঙ্গে কাজ করেছেন এই অভিনেত্রী। এই অভিনেত্রীর বয়স বাড়লেও চিররঙিন থাকতে ভালোবাসেন। টলিপাড়ার অন্যতম ঠোঁটকাটা অভিনেত্রীর মধ্যেও শ্রীলেখার নাম আসবে। তিনি বরাবর সোজা কথা সোজাভাবে বলতে বেশি ভালোবাসেন। অভিনেত্রী বহুবার যৌনতা, প্রেম, পরকীয়া নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন তিনি। মাঝেমধ্যেই বেফাঁস মন্তব্য করে নানান বিতর্কেও জড়ান অভিনেত্রী। তবে সেই সব বিতর্ক নিয়ে বিশেষ পাত্তা দিতে নারাজ তিনি।

Advertisement

সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভালোই সক্রিয়। এখানেও অনেক সময় সোজাসাপটা মন্তব্য করে অনেক সময়ই নানান বিতর্কে জড়িয়েছেন অভিনেত্রী। বর্তমানে অভিনেত্রী হায়দ্রাবাদে আছেন। তেলেঙ্গনা চলচ্চিত্র উৎসবে শ্রীলেখা অভিনীত ‘নির্ভয়া’ ছবির স্ক্রিনিং-এর জন্যই হায়দ্রাবাদে হাজির হয়েছিলেন অভিনেত্রী। এই চলচ্চিত্র উৎসবের প্রথম দিন রানি পাড়, পোস্ত সবুজ শাড়িতে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রীকে। আর ছিল কানে জড়োয়ার ঝুমকো। একেবারে বাঙালি রমনীর সাজে ধরা দিয়েছিলেন শ্রীলেখা।

এই একই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন অভিনেত্রী মুনমুন সেন। প্রয়াত বর্ষীয়ান অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন কন্যা এদিন অনুষ্ঠানের জন্য গাঢ় সবুজ রঙের পোশাকে ধরা দিয়েছিলেন। প্রিয় অভিনেত্রীকে কাছে পেয়ে দেখা হতেই, একফ্রেমে ধরা দিলেন টলি পাড়ার দুই সুন্দরীকে। এদিন প্রিয় ‘মুন দি’র সঙ্গে সেলফি তুলে পোস্ট করেন অভিনেত্রী। ছবির নীচে ক্যাপশনে লেখেন, ‘আমার দেখা সবচেয়ে সুন্দরী! মুনদি যেমন সুন্দর তেমনই সুন্দর তাঁর আঁকা। অনেকেই তাঁর এই গুণের কথা জানেন না। অনেক ভালোবাসি তোমায় মুনমুন দি।’

Advertisement

টলি পাড়ার এই দুই সুন্দরী বহুদিন পর একফ্রেমে ধরা দিলেন। আর এদের দেখে ভালোবাসা জানিয়েছেন অনুরাগীরা। কমেন্ট বক্সে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন সক্কলে। এদিন সংবাদমাধ্যমে মুনমুন সেন স্পষ্ট জানিয়েছেন, রাজনীতিকে পুরোপুরি বিদায় জানিয়ে, এখন পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন তিনি। এই মুহূর্তে নিজের দুই মেয়ে রাইমা, রিয়া এবং স্বামীর সঙ্গে কোয়ালিটি সময় কাটছে তাঁর। ফাঁকা সময় বই পড়েন, ছবি আঁকছেন। এই অনুষ্ঠানে আরও হাজির হয়েছিলেন বিদীপ্তা চক্রবর্তী, গৌরব চক্রবর্তী, জয় সেনগুপ্ত প্রমুখ। 

 

 

Related Articles

Back to top button