ব্যবসা-বানিজ্য ও অর্থনীতি

সুপারহিট এই ব্যবসার জন্য ছেড়ে দেবেন চাকরি, প্রতি মাসে হবে ১০ লাখ টাকা আয়, জানুন পদ্ধতি

আজকাল প্রায় সকলেই ছোটখাটো ব্যবসা করে অর্থ উপার্জনের চেষ্টা করছে

×
Advertisement

মূল্যবৃদ্ধির বাজারে টিকে থাকতে গেলে প্রত্যেক মানুষকেই এখন অনেকটা উপার্জন করতে হয়। আর তাই জন্য আজকালকার দিনে মধ্যবিত্তদের মধ্যে ছোটখাটো ব্যবসা করার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। কিন্তু ব্যবসা করা খুব একটা সহজ কাজ নয়। বড় বিনিয়োগ ছাড়া খুব কম ব্যবসাই হয়। এদিকে মধ্যবিত্তদের কাছে সঞ্চিত অর্থের অভাবে তাদের ব্যবসা করা হয়ে ওঠে না। কিন্তু আজকের এই প্রতিবেদনে আপনাদের এমন এক ব্যবসায়িক আইডিয়া জানাবো যাতে আপনি প্রতিমাসে ছোট বিনিয়োগ করে বড় উপার্জন করতে পারবেন। আপনাকে কাজ করতে হবে দুগ্ধজাত পণ্যের সুপরিচিত কোম্পানি আমুলের সাথে।

Advertisement

আমুল ফ্রাঞ্চাইজি সম্পর্কে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী আপনাদের জানিয়ে রাখি এই কোম্পানির ফ্রাঞ্চাইজি নিলে প্রতি মাসে প্রায় ৫ লাখ থেকে ১০ লাখ টাকার বিক্রি হয়ে থাকে। কোম্পানি আমূল পণ্যের ন্যূনতম বিক্রয় মূল্যের উপর কমিশন প্রদান করে। এতে একটি দুধের প্যাকেটে ২.৫ শতাংশ, দুগ্ধজাত পণ্যে ১০ শতাংশ এবং আইসক্রিমে ২০ শতাংশ পর্যন্ত কমিশন পাওয়া যায়। এছাড়া আপনি জানলে অবাক হবেন যে আমুল আইসক্রিম স্কুপিং পার্লারের ফাঞ্চাইজি নিলে রেসিপি ভিত্তিক আইসক্রিম, শেক, পিৎজা, হট চকলেট ড্রিঙ্ক এর ওপর ৫০ শতাংশ কমিশন দেয় কোম্পানি।

তবে এই আমূল আউটলেট ফ্রাঞ্চাইজি নিতে কি লাগবে? আপনার শুধুমাত্র ১৫০ বর্গফুট জায়গা থাকা প্রয়োজন। আপনার যদি এই পর্যাপ্ত জায়গা থাকে তবেই কোম্পানি আপনাকে ফ্র্যাঞ্চাইজি দেবে। এছাড়া আইসক্রিম পার্লারের ফ্যাঞ্চাইজ নিতে গেলে কমপক্ষে ৩০০ বর্গফুট জায়গা থাকতে হবে। তবে আমুল আইসক্রিম স্কুপিং পার্লারের ফ্রাঞ্চাইজি নেওয়ার পরিকল্পনা করলে আপনাকে একটু বেশি বিনিয়োগ করতে হবে। আপনাকে প্রায় ৫ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। এছাড়া ব্র্যান্ড সুরক্ষা হিসাবে ৫০ হাজার টাকা ও সংস্কারের জন্য ৪ লক্ষ টাকা খরচ রয়েছে। সরঞ্জাম কিনতে প্রায় ১.৫ লাখ টাকা খরচ হবে।

Advertisement

তবে আপনি যদি সাধারণ আমুল আউটলেট বা আমুল রেলওয়ে পার্লার ফ্রাঞ্চাইজি নেওয়ার চেষ্টা করেন তাহলে আপনাকে কম বিনিয়োগ করতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রায় ২ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে এবং ব্র্যান্ড নিরাপত্তা হিসাবে ২৫ হাজার টাকা দিতে হবে। এছাড়া সংস্কারের জন্য এক লক্ষ টাকা এবং সরঞ্জামের জন্য 75 হাজার টাকা খরচ করতে হবে। তবে আমুলের সাথে ব্যবসা করে আপনার কখনো ক্ষতি হবে না। আসলে আমুলের গ্রাহক বেস অত্যন্ত বিশ্বাসযোগ্য। আর এই কোম্পানির প্রোডাক্ট বড় শহরের পাশাপাশি ছোট শহরগুলিতেও চলে। তাই আপনার কাছে যদি সঞ্চিত অর্থ থাকে তাহলে আমুল ফ্রাঞ্চাইজি নিয়ে মাসে মাসে অনেক লাভ করতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button