×
ভাইরাল & ভিডিও

Viral: মাঠের মাঝে বাংলা আঞ্চলিক গানে সুন্দর নৃত্য পরিবেশন কমবয়সী যুবতীর, ভাইরাল ভিডিও

'ডান্সার স্টার মৌ' ইউটিউব চ্যানেলে ভাইরাল ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে

Advertisement

আজকালকার দিনে আট থেকে আশি প্রত্যেকের হাতেই স্মার্টফোন এবং উন্নত ইন্টারনেট পরিষেবা দেখা যায়। আসলে প্রযুক্তির তালে তাল মিলিয়ে চলতে গিয়ে এখনকার দিনে ডিজিটাল হওয়াটা অত্যন্ত অত্যাবশ্যকীয় হয়ে উঠেছে। স্মার্টফোনের দুনিয়াতে ব্যবহার কমেছে টিভি রেডিওর। বর্তমানে তো বিনোদনের অন্যতম পরিপূরক হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ। এই সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপে আপনি যেকোন সময় নিজের ইচ্ছামত ভিডিও বা ছবি দেখে সময় কাটাতে পারেন।

Advertisement

বিনোদনের পাশাপাশি অনেকেই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে নিজেদের প্রতিভার ভিডিও পোস্ট করে তা সকলের কাছে পৌঁছে দিতে চায়। আবার অনেকে এই ভিডিও বানিয়ে নিজের রুজিরুটি চালায়। অনেকেই আজকাল জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ইউটিউবে নিজেদের প্রতিভা মেলে ধরে বিভিন্ন নাচ, গান বা অভিনয় এর ভিডিও বানিয়ে থাকে। সেই সমস্ত ভিডিও যদি নেটিজেনদের পছন্দ হয়ে যায় তাহলে তাঁরা তাতে অনেক লাইক ও কমেন্ট করেন। এর ফলে ভিডিওটি চোখের পলকে দেশ থেকে দেশান্তরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। তাই আজকাল বিভিন্ন নাচের বা গানের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ইউটিউবে পোস্ট করা ট্রেন্ডিং হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি এক কমবয়সী যুবতীর নাচের ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হচ্ছে ইন্টারনেটের দুনিয়াতে। ওই ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, এক গ্রামের কমবয়সী যুবতী একটি আঞ্চলিক গানের তালে কোমর দুলিয়ে মাঠের মাঝখানে খুব সুন্দর নাচ করে ভিডিও বানায়। ওই গানটি হল বাংলা লোকসংগীত ‘পীরিত ভূত’। সেই গানের তালে একটি সুন্দর লাল শাড়ি পরে খোলা আকাশের নিচে মাঠের মাঝে নাচ করেছেন যুবতী। গানের লিরিক্স অনুযায়ী তাঁর এক্সপ্রেশন মন জয় করে নিয়েছে আপামর নেটজনতার।

Advertisement

জানিয়ে রাখা ভাল, এই ভিডিওটি পোস্ট করেছে ডান্সার স্টার মৌ নামক একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে। সম্ভবত ওই যুবতীর নাম মৌ। সে মাঝে মাঝেই বিভিন্ন ডান্স কভার ভিডিও বানিয়ে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে পোস্ট করে থাকেন। তবে এবারের ভিডিওটি সুপারহিট হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যেই ভিডিওটি ৪৫ হাজারের কাছাকাছি মানুষ দেখেছেন এবং ১ হাজার মানুষ লাইক দিয়েছেন। এছাড়া অনেকেই এই ভিডিওটিকে শেয়ারও করেছেন।

Related Articles

Back to top button