বাংলা সিরিয়ালবিনোদন

শেষ হতে চলেছে রানী রাসমনি, নিজেকে বাঁচাতে কী সিদ্ধান্ত নিলেন সকলের প্রিয় ‘রানীমা’

×
Advertisement

করোনা কি তা এখন ভালো করেই জানেন রানী রাসমনী ধারাবাহিকের দিতিপ্রিয়া। গত এপ্রিল মাসে সপরিবারে করোনা আক্রান্ত হয়ে শ্যুটিং ফ্লোর ছেড়ে বাড়িতে নিভৃতবাসে ছিলেন অভিনেত্রী। কখনো ছবি এঁকে কখনো বই পড়ে সেই খারাপ দিনগুলি অতিক্রম করেছিলেন। করোনাকে হারিয়ে ফের শ্যুটিং ফ্লোরে ফিরে এসেছিলেন রানীমা। কিন্তু শহর করোনা মুক্ত এখনো হয়নি তাই রাজ্যে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় বার লকডাউন। তাই তো দিতিপ্রিয়াকে শ্যুটিং ফ্লোর ছেড়ে ফের গৃহবন্দী হতে হল।

Advertisement

আর পাঁচ জন মানুষের ব্যস্ত শিডিউল ছেড়ে বাড়ি বসে থাকতে হচ্ছে দিতিপ্রিয়াকে। অন্য দিন গুলো এই সময়ে শ্যুটিং ফ্লোরে দাপিয়ে বেড়াতেন। তাই মন খারাপ তো একটু হবেই। কিন্তু শহরের অসুখ সাড়ানোর জন্য এই বন্দিদশাই ভালো। তাই একান্তে সময় কাটাচ্ছেন সকলের প্রিয় দিতিপ্রিয়া। দীর্ঘ শ্যুটিং এর পর নিজেকে সময় দেওয়ার একটা ছুটিও বলা যেতে পারে। তবে এই বন্দীদশা এক্কেবারেই ভালো লাগছেনা দিতিপ্রিয়ার। সেটা অভিনেত্রীর ইন্সটাগ্রামে উঁকি দিলে বোঝা যাচ্ছে।

দিতিপ্রিয়াও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত চরিত্র অমলের মতো জানলা দিয়ে খোলা আকাশের দিয়ে তাকিয়ে তিনি। অভিনেত্রীও অমলের মতো যেন অপেক্ষায় রয়েছেন মুক্তি পাওয়ার। একান্তে কাটানো নানান মুহূর্ত ভেসে বেড়াচ্ছে তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে। আরো এক স্টোরিতে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে অন্ধকার ঘরে মৌসুমী ভৌমিকের গাওয়া ‘আমি শুনেছি সে দিন তুমি’ গানটি বেজে উঠেছে। পাশাপাশি বার্তা দিয়েছেন ‘নিজের জন্য বাঁচা, নিজেকে নিয়ে’।

Advertisement

গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, রানী রাসমনি ধারাবাহিকে খুন শীঘ্রই রানীমার চরিত্রটির যবনিকা হতে চলেছে। ২০১৭ সালের ২৪ জুলাই থেকে জি বাংলায় শুরু হয় করুণাময়ী রানী রাসমণি ছোট্ট রানির পথচলা। কিশোরী রানী থেকে বৃদ্ধা রানীমার জীবনকাহিনী নিয়ে শুরু হয় এই ধারাবাহিক। এবার রানীমার জীবন শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে। এই নিয়ে অনেক দর্শকের ও বড্ডো মন খারাপ। এই মন খারাপ রানীমার চরিত্রে দিতিপ্রিয়াকে দেখতে পাবেনা বলে।

Related Articles

Back to top button