বলিউডবিনোদন

বক্স অফিস কালেকশন প্রায় শূন্য! সুপার ফ্লপ হিসেবে চিহ্নিত ভাইজানের ‘রাধে’

করোনা প্যানডেমিক চলার কারণে সালমান খান এই ছবিটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে রিলিজ করেছিলেন

×
Advertisement

ঈদে ভাইজানের মুভি আসছে না, এটা হয়ত তাদের ভক্তদের কাছে সবথেকে খারাপ খবরের মধ্যে একটি। আগের বছর ভাইরাসের আক্রমণের কারণেই ঈদের সময় রিলিজ করা যায়নি সালমানের মুভি “রাধে: ইওর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই”। তবে ভক্তদের অনুরোধে সাড়া দিয়ে আগের বারে না হলেও এবারের ঈদে ওটিটি মাধ্যমে রিলিজ হয়ে গেলো ‘রাধে’। তবে, মুক্তি পেলেও এই ছবিটি বক্স-অফিসে ভালো লাভের মুখ কি দেখতে পাবে? সেই নিয়ে আলাপচারিতায় খোদ সালমান খান।

Advertisement

বক্সঅফিসে যেকোনো মুভি হিট করানোর জন্য শুধুমাত্র সালমান খান যথেষ্ট। তার স্টারডম এবং ভক্তদের মাঝে তার জনপ্রিয়তার জোরে তিনি প্রত্যেকটা সিনেমা হিট করিয়ে আসছেন। তবে এবারের রাধে ছবিটি হয়তো বক্সঅফিসে লাভের মুখ দেখতে পাবেনা। একে তো এই সিনেমাটি রিলিজ করা হয়েছে ওটিটি প্লাটফর্মে, উপরন্তু দুবাই এবং অন্যান্য জায়গার কয়েকটা মাত্র স্ক্রিনে চালানো হচ্ছে রাধে।

করোনাভাইরাস প্যানডেমিক এবং দেশে চলতে থাকা করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মাঝে ঈদে ভক্তদের জন্য এই মুভিটি রিলিজ করা হলেও, সালমান নিজেও জানেন এই ছবিটি ১০ থেকে ১৫ কোটি টাকার বেশি ব্যবসা করতে পারবে না। তার সাথেই, ওটিটি প্লাটফর্মে রিলিজ করার কারণে এই সিনেমার পাইরেসি ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে বিভিন্ন পাইরেসি ওয়েবসাইটে।

Advertisement

এই মুভির বক্স অফিস কালেকশন প্রসঙ্গে কথোপকথনে সালমান বললেন, “কয়েকজন আমার এই নম্বরে হয়তো খুশি হবেন, আবার অনেকে দুঃখ পাবেন। আমরা জানি, আমরা এই রাধে ছবিতে টাকা তুলতে পারব না, হয়তো এই মুভির বক্স অফিস কালেকশন প্রায় শূন্যের কাছাকাছি হবে। সুপার ফ্লপ হিসেবে এই মুভিটিকে চিহ্নিত করা হবে। কিন্তু তবুও আমরা এই ছবিটি রিলিজ করবই।কারণ এই ছবিটিকে রিলিজ করার এটাই সব থেকে ভালো সময়।”

তার সঙ্গেই তিনি আরো যোগ করলেন, “আমি সিনেমা হল এর মালিকদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী, আমি অন্যান্য প্লাটফর্মে এই ছবিটি রিলিজ করছি বলে। কিন্তু এই সময়ে দাঁড়িয়ে এটাই হয়তো সবথেকে সঠিক সিদ্ধান্ত। আমরা লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছিলাম করোনা প্যানডেমিক শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মুভি রিলিজ করার। কিন্তু, প্যানডেমিক এত সহজে যাবে বলে মনে হচ্ছে না। যদি আপনার মনে থাকে, মাস কয়েক আগে ওরা সবাই আমাকে অনুরোধ জানিয়েছিল যাতে এই ছবিটি রিলিজ করা হয় থিয়েটারে।”

তিনি আরো বলেন, “বর্তমানে ১০০০ এর বেশি সিঙ্গেল স্ক্রিন সিনেমা হল বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এই কারণে আমরা বাধ্য হয়ে এই ছবিটিকে অন্যান্য প্লাটফর্মে রিলিজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ভারতের বাইরে মাত্র ২০ থেকে ২৫টি স্ক্রিনে চলছে রাধে। যখন প্যানডেমিক পরিস্থিতি ঠিক হবে, তখন আমরা এই ছবিটির থিয়েটার রিলিজ করব ভারতে। যদি ছবিটি ভাল হয় তাহলে দর্শক এই ছবিটিকে দেখার জন্য আবারো হলমুখী হবে। তার সাথেই আমাদের কাছে এমন কিছু দর্শক আছেন, যারা মোবাইলে এবং ল্যাপটপে বা স্মার্ট টিভিতে কন্টেন্ট দেখা খুব একটা পছন্দ করেন না। তাই তাদের জন্য এই ছবিটি আরো একবার আসবে সিনেমা হলে।”

Related Articles

Back to top button