দেশনিউজ

এ যেন মিরাকেল! হিমাচল প্রদেশের এই গ্রামে সবাই করোনা পজিটিভ, একজন ছাড়া

Advertisement

হিমাচল প্রদেশ: বিশ্বের অন্যান্য জায়গার মতো বরফের চাদরে মোড়া হিমাচল প্রদেশেও থাবা পড়েছে করোনার। তবে তার মধ্যেও এক অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘটে গিয়েছে। প্রকৃতির সৌন্দর্যে ভরা এই জায়গায় হিমাচলের লাহাউল জেলার থোরাং গ্রাম। এই গ্রামের প্রত্যেকেই করোনায় আক্রান্ত। প্রত্যেকেরই করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে করোনা ছুঁতে পারেনি গ্রামের একজন বাসিন্দাকে! তিনিই গোটা গ্রামের একমাত্র করোনা নেগেটিভ ব্যক্তি। অবাক হচ্ছেন তো? কিন্তু এটাই সত্যি। এই ঘটনাকে কোন ভাষা দিয়ে ব্যাখ্যা করা যায়, তা বলা মুশকিল। তবে এটা শুধু মিরাকেল নয়, এর মধ্যে কোনও ঐশ্বরিক ক্ষমতা থাকলেও থাকতে পারে। এই খবর প্রকাশ মাত্র হতবাক গোটা দেশ।

মানালি-লেহ হাইওয়ের পাশে অবস্থিত হিমাচল প্রদেশের এই ছোট্ট থোরাং গ্রাম সেখানেই বর্তমানে থাকে ৪২ জন। বাকি বাসিন্দারা শীতের দাপটে কুলু পাড়ি দিয়েছে। এই ৪২ জন গ্রামবাসীর মধ্যে ৪১ জনই করোনা পজিটিভ। শুধুমাত্র ভূষণ ঠাকুর নামে ৫২ বছরের এক গ্রামবাসী ছাড়া তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। হিমাচলে করোনা উদ্বেগ বাড়াচ্ছে দেখে নিজেরাই উদ্যোগ নিয়ে করোনা পরীক্ষা করায়। সেই মত গ্রামীণ সকলের করোনা টেস্ট হয়। রিপোর্ট এলে দেখা যায়, গ্রামের ৪১-জনের রিপোর্ট পজিটিভ, শুধুমাত্র ১জন ছাড়া।

কিন্তু এমনটা কী করে সম্ভব? এ প্রসঙ্গে ওই ব্যক্তি অর্থাৎ ভূষণ ঠাকুর বলেছেন আমার স্ত্রী মা-সহ পরিবারের প্রত্যেকেরই রিপোর্ট করোনা পজেটিভ এসেছে। আমি তারপর থেকে গত চারদিন ধরে সম্পুর্ণ আলাদা ঘরে রয়েছি। নিজের খাবার নিজেই বানাচ্ছি।’ এভাবেই নিজের সম্পর্কে সচেতন হয়ে কার্যত মিরাকেল ঘটিয়েছেন ব্যক্তি পঞ্চাশোর্ধ এই ব্যক্তি।

Tags

Related Articles

Back to top button