×
বলিউডবিনোদন

‘পাগলের ছেলে পাগলই হয়’, জন্মের আগেই স্নিগ্ধজিৎ-এর মাকে শুনতে হয়েছিল এমন কথা, ভাইরাল ভিডিও

Advertisement

গানের জগতে স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিককে বর্তমানে চেনেন অনেকেই। বাংলা সারেগামাপার হাত ধরে মানুষের মাঝে পরিচিতি পেতে শুরু করেছিলেন গায়ক। বর্তমানে তিনি হিন্দি সারেগামাপার মঞ্চে গান গেয়ে মন জয় করে নিয়েছেন সমস্ত দর্শকদের পাশাপাশি বিচারকদেরও। হিন্দি সারেগামাপার এই সিজনে দর্শকাসনে আছেন শঙ্কর মহাদেভান, হিমেশ রেশ্মিয়া, বিশল দাদলানি। চলতি সপ্তাহের উইকেন্ডে মা স্পেশল এপিসোডে উপস্থিত রয়েছেন অনেকেরই মা। এই এপিসোডেই স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিক তোমাকে উদ্দেশ্য করে ‘তারে জমিন পার’এর ‘মেরি মা’ গেছেন।

Advertisement

তবে শারীরিক অসুস্থতার জন্য এই স্পেশাল এপিসোড স্নিগ্ধজিৎ -এর মা উপস্থিত থাকতে পারেননি। অক্সিজেন সাপোর্টে রয়েছেন তার মা। তার স্ত্রী রয়েছেন তার মায়ের কাছেই। বুনিয়াদপুরের ছেলে স্নিগ্ধজিৎ। এদিন স্পেশল এপিসোডে উপস্থিত থাকতে না পারায় ভিডিও কলেই ছেলের পারফর্ম্যান্স দেখবেন তিনি। অবশ্য এই এপিসোডের শুট আগেই হয়ে গিয়েছে। গান শেষে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন অভিনেতা। তিনি সারেগামাপার মঞ্চে জানিয়েছেন, তার বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন, তাই তিনি জন্মানোর আগেই তার মাকে শুনতে হয়েছিল বাচ্চা নষ্ট করে দেওয়ার কথা। কারন অনেকেই তার মাকে বলেছিলেন পাগলের ছেলে পাগলই হয়। অবশ্য অনেকসময় জিনগত কারণের জন্য এই সমস্যা দেখা দেয়। তাই সেইসময় এমন অনেক কথা শুনতে হয়েছিল তার মাকে। তবে সবার কথা মিথ্যে করে হাসিমুখে সমস্ত কষ্ট সহ্য করেও আজ তিনি গান গেয়ে সকলের মনে আনন্দ দেয় এটাই তার কাছে সব থেকে বড় পাওনা।

শুরু থেকেই তিনি গায়ক হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন। আজকের এই জায়গায় পৌঁছাতে তাকে পার করে আসতে হয়েছে অনেককিছু। এই লড়াইয়ে তার স্ত্রী আর মা পাশে না থাকলে তিনি কখনোই এতদূর আসতে পারতেন না। একজন সাধারণ ছেলে থেকে গায়ক হয়ে ওঠার পেছনে তার মা ও স্ত্রীয়ের অবদান অনস্বীকার্য তা তিনি বারবার স্বীকার করেছেন। সম্প্রতি মা স্পেশল এপিসোডে মায়ের জন্য গান গেয়ে তিনি রীতিমতো সকলকে আবেগপ্রবণ করে দিয়েছিলেন। তার গায়েকির জন্য আবারো হিন্দি সারেগামাপার মঞ্চে প্রশংসিত হলেন স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিক। গর্বিত তার মাও।

Advertisement

Related Articles

Back to top button