টলিউডবিনোদন

করোনা কালে মানুষের পাশে, রক্তদান করে অন্যরকম মাতৃদিবস পালন নীল-তৃণা জুটি

×
Advertisement

নীল ভট্টাচার্য ও তৃণা সাহা টলিউডের প্রিয় মুখ সাথে আবার হিট জুটি। না, পর্দায় নয়, বাস্তব জীবনে এরা বিবাহিত। পর্দায় এরা একসাথে এখনো কোনো ধারাবাহিকে কাজ করেননি। নীল “কৃষ্ণকলি” ধারাবাহিকে এবং তৃণা সাহা “খটকুটো” ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন।তবে নীল তৃণার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন অন্য কেউ। তবে ত্রিনীলের প্রেমকাহিনী ঠিক সিনেমার মতোই। কলেজ জীবন থেকে এদের প্রেমপর্ব শুরু হয়। সিনেমার মতোই মাঝে বিচ্ছেদ হলেও আবার নতুন করে শুরু হয় ২০১৭ সালের জুন থেকে। পরিবারের সকলের সম্মতিতে বহু বছরের প্রেম পরিনতি পায় ২০২১ এর ৪ঠা ফেব্রুয়ারি সোশ্যাল ম্যারেজের মাধ্যমে।

Advertisement

দক্ষিণ কলকাতার একটি নামী ক্লাবে বসেছিল এই হেভি ওয়েট কাপেলের জমকালো বিয়ের আসর। সেই আসরেই নিজের প্রেমিক তৃণার সাথে প্রথমে রেজিস্ট্রি ম্যারেজ তারপর অগ্নিসাক্ষী করে সনাতনী নিয়ম কানুন মেনে কপালে সিঁদুর তুলে দেন নীল। নীল তৃণা বিয়ের সব নিয়ম কানুন জমিয়ে সেলিব্রেট করেন। আর এদের বিয়ের নানান মুহূর্ত ভাইরাল হয় নেট দুনিয়াতে। বিয়ের পর কাজে ব্যস্ত হয়ে যাওয়ায় নিজের ডেস্টিনেশান হানিমুনে যেতে পারে। সম্প্রতি দার্জিলিং এ হানিমুন সারেন।

বিয়ের বয়স মোটে তিন মাস। কাজের চাপে একে অপরকে সময় দিতে ভোলেননি ত্রিনীল জুটি। গতকাল ৯ই মে ছিল মাতৃদিবস। মায়েদের দিন। আর এও দিন যখন অন্যান তারকারা মাকে উইশ করতে ব্যস্ত তখন এই জুটি অন্যভাবে মাতৃ দিবস উদযাপনের ছবি মিললো এই জুটির ইন্সটাগ্রাম হ্যান্ডেলে। ৮ই মে ছিল বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস। সেই দিন অনেক তারকা রক্ত দিয়েছিলেন। পরের দিন মাতৃদিবসের দিন এবার নবদম্পতি একসঙ্গে গিয়ে রক্তদান করলেন।

Advertisement

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেশ জুড়ে বেড, রক্ত, আর অক্সিজেনের অভাব দেখা দিয়েছে। করোনা নিয়মবিধি মেনে মুখে মাস্ক পড়ে রক্ত দিলেন এরপর একসঙ্গে এই যুগল ক‍্যামেরাবন্দিও হন । সেই ছবি নিজের ইনস্টা হ‍্যান্ডেলে শেয়ার করেছেন নীল তৃণা। নীল লিখেছেন,রক্তদান অনেক জীবনই বাঁচাতে পারে। বিশ্ব মাকে বাঁচাতে সবাই এগিয়ে আসুন। শুভ মাতৃ দিবস।’ রক্তদানের ছবির পাশাপাশি তৃণা নিজের মা ও শাশুড়ির একসঙ্গে একটি ছবিও শেয়ার করেছেন তৃণা। ক‍্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমার জীবনের দুই সেরা উপহার।’ এরপরই দুইজনের অনুগামীরা প্রশংসা আর ভালোবাসায় ভরিয়ে দিলেন। নিমেষে ভাইরাল হয় এই পোস্ট।

Related Articles

Back to top button