টলিউডবাংলা সিরিয়ালবিনোদন

সদ্য মা হয়েছেন ‘মিঠাই’র নন্দা! ছেলের সঙ্গে প্রথম পুজোর কি প্ল্যান প্রিয়ম-শুভজিৎের?

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাইতে নন্দার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন প্রিয়ম চক্রবর্তী। তবে হঠাৎ করে মিঠাই ধারাবাহিকে শ্যুটিং করা বন্ধ করে দিয়েছিলেন অভিনেত্রী। শুধু মিঠাই নয় ধারাবাহিক, ওয়েব সিরিজের সব শ্যুটিং এখন বন্ধ রেখেছেন অভিনেত্রী। প্রথমে তিনি জানিয়েছিলেন শারীরিক অসুস্থতার কারণে মিঠাই এর নন্দার চরিত্র থেকে স্বেচ্ছায় সরে এসেছেন প্রিয়ম। তারপরেই আসল কারণ জানা যায় জুলাই মাসে। তাঁর ধারাবাহিক ছাড়ার কারণ।।

এই জুলাইতেই প্রথমবার মা হয়েছেন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী। ছেলের মা বাবা প্রিয়ম চক্রবর্তী আর শুভজিৎ করের। এখন ছেলেকে নিয়ে সমস্ত দিন কাটছে অভিনেত্রীর। ছেলেকে নিয়ে কাটছে এই বারের জন্মদিন। তাই এই পুজোটাও একেবারেই সম্পূর্ণ আলাদা অন্যবারের তুলনায়। ছেলেকে নিয়ে প্রথম জন্মদিন। এক সাক্ষাৎকারে অভিনেতা শুভজিৎ জানিয়েছেন, ছেলেকে কাছে পাওয়ার পর এবারের পুজো তাঁদের কাছে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। সন্তানের মা-বাবা হওয়ার পর থেকে তাঁদের জীবন খুশিতে ভরে গিয়েছে, যা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। এখন দুই তারকার গোটা সময়টা নিয়েই কাটে এই একরত্তিকে নিয়ে।

প্রিয়ম জানিয়েছেন, ‘মা হওয়া এই পৃথিবীর সেরা অভিজ্ঞতা। যতদিন না তাঁদের জীবনে ছেলে এসেছে ততদিন এটা বোঝেননি। সব কিছুই বদলে গিয়েছে তাঁদের জীবনে। অনেক কিছু পরিবর্তন এসেছে। যেমন আগে পুজোর সময় তিনি নিজের জন্য অনেক জামা কিনতেন। আর এখন ছেলের জন্য কেনেন। পঞ্চমী থেকেই একরত্তি নতুন জামা পরা শুরু করে দিয়েছে। একরত্তির পুজো তো মহালয়া থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে, ওই দিনই খুদে নতুন জামা পরেছিল।’

‘ধ্রুবতারা’খ্যাত শুভজিৎ এবারের পুজো প্ল্যান প্রসঙ্গে বললেন, এখন পঞ্চমী, নবমী আর দশমীর মধ্যে তাঁর কাছে কোনও পার্থক্য নেই সেভাবে। যেহেতু ঘরে একজন ছোট সদস্য আছে তাই তাঁর কথা মাথায় রেখে বাড়িতেই পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটাবেন। এই মুহূর্তে শ্যুটিং না থাকায় এবারের পুজোতে পুরো পরিবার গ্রামের বাড়ি নৈহাটি যেতে পারেম। এই প্রথম তাঁর ছেলে গ্রামের বাড়িতে যাবে তাই তিনি বেশ উত্তেজিত।

প্রিয়ম আর শুভজিৎ এদিন আরো জানালেন, প্রতিবার পুজোর জন্য তাঁরা সবসময় বেশি করে ছুটি জমিয়ে রাখতেন। আর পুজো এলেই দুজনে ঘুরতে বেরিয়ে পড়তেন তো কখনো লং ড্রাইভে বেরিয়ে পরতেন। তবে এবারে তা না হলেও পরেরবার করোনা পরিস্থিতি ঠিক হয়ে গেলে আগের মতো ঘুরতে বেরিয়ে পড়বেন।

Related Articles

Back to top button