আন্তর্জাতিকবলিউডবিনোদন

ম্যাক্সিকোর অ্যান্দ্রে মেজা হলেন নতুন মিস ইউনিভার্স, একটুর জন্য খেতাব ফসকে গেল ভারতীয় সুন্দরীর

করোনা আবহে ৬৯-তম মিস ইউনিভার্সের আসর বসেছিল ফ্লোরিডার সেমিনোল হার্ড রক হোটেল অ্যান্ড ক্যাসিনোতে। গতকালই নতুন মিস ইউনিভার্সের নাম ঘোষণা করা হয়ে গিয়েছে। টেলিভিশনের পর্দাতে প্রায় ৩ ঘণ্টা ধরে টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হয় এই অনুষ্ঠান। আর শোয়ের শেষে শেষ হাসি হাসলেন মেক্সিকোর সুন্দরী আন্দ্রেয়া মেজা।

কে এই আন্দ্রেয়া মেজা? আন্দ্রেয়া মেজা শুধুমাত্র মডেলিং করেননি। এর পাশাপাশি আন্দ্রেয়া একজন সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। ২০১৭ সালে অটোনোমাস ইউনিভার্সিটি অব চিহুয়াহুয়া থেকে সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে গ্র্যাজুয়েশান করেছিলেন তিনি। এছাড়া তিনি লিঙ্গ বৈষম্য এবং লিঙ্গ সহিংসতা সম্পর্কে বেশ সোচ্চার সোশ্যাল মিডিয়াতে। এমনকি এই বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতার সময় তিনি লিঙ্গ বৈষম্য নিয়ে কিছু কঠোর বক্তব্য রেখেছিলেন। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা মিস ইউনিভার্স জোজোবিনি তুনজি ছিলেন।

বিশ্বসুন্দরীর ২০২১ এর প্রতিযোগিতা শুরু হয় ৭৩ জন সুন্দরীর সাথে। এই ৭৩ জনের মধ্যে কঠিন লড়াই করে মেক্সিকোর এই সুন্দরী আন্দ্রেয়া মেজার মুকুটে উঠলো বিশ্ব সুন্দরী হওয়ার এই খেতাব। মিস ইউনিভার্স ২০১৫ পিয়া আলোনজো ওয়ার্টসবাচ অ্যান্দ্রেকে শুভেচ্ছা জানাতে নিজে ট্যুইট করেছেন। সেই ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ‘শুভেচ্ছা অ্যান্দ্রে মেজা! নতুন মিস ইউনিভার্স, তোমার নতুন পথচলা দেখার জন্য অপেক্ষা ধরে রাখতে পারছি না। শুভেচ্ছা মেক্সিকো।

৬৯ মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতায় মেক্সিকো এই নিয়ে মোট তিনবার বিজয়ীর খেতাব জিতে নিয়েছেন। ১৯৯১ সালে লুপিটা জোনস এবং ২০১০ সালে জিমেনা নাভাররেতে মিস ইউনিভার্স হয়েছিলেন। ১১ বছর পর এই প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছেন সুন্দরী আন্দ্রেয়া মেজা। অ্যান্দ্রেকে শুভেচ্ছা জানাতে শুরু করেছেন গোটা বিশ্বের মানুষ।

বিশ্বসুন্দরীর এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিলেন কর্ণাটকের ক্যাথলিক পরিবারের সন্তান অ্যাডলিন। অ্যাডলিনের শরীরে দাগ ছিল, পাশাপাশি ছিল স্পিচ ডিফেক্ট। তা সত্ত্বেও নিজের প্রতিভার জোরে মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্সের শেষ অব্দি ছিলেন। এই প্রতিযোগিতায় তিনি নারীর অধিকারের কথা বলেন তিনি। তবু শেষ পর্যন্ত এই সুন্দরী প্রতিযোগিতায় তৃতীয় রানার আপ হলেন। অনেকে অ্যাডলিনের জেতার আশায় ছিলেন তবে শেষ পর্যন্ত না হওয়াতে তা বেশ দুঃখ পেয়েছে অ্যাডলিনের অনেক অনুগামী।

Related Articles

Back to top button