ক্রিকেটখেলানিউজ

টেস্ট ক্রিকেটে ইতিহাস, ম্যাচে আম্পায়ারিংয়ের দায়িত্বে মহিলা

Advertisement

সিডনি: টেস্ট ক্রিকেটের (Test Cricket) ইতিহাস আজ, বৃহস্পতিবার (Thursday) এক বড় পরিবর্তনের সাক্ষী রইল। ভারত (India) এবং অস্ট্রেলিয়ার (Australia) মধ্যে চলা সিডনি (Sydney) টেস্টে এক মহিলা আম্পায়ারের কাঁধে তুলে দেওয়া হল ম্যাচের গুরুদ্বায়িত্ব। পুরুষদের টেস্ট ম্যাচে এই প্রথম কোনও মহিলা আম্পায়ারিং করলেন। নাম ক্লেয়ার পোলোসাক।

আজকের ম্যাচে ৩২ বছর বয়সি পোলোসাক চতুর্থ আম্পায়ারের ভূমিকা পালন করলেন। ইতিপূর্বে তিনি পুরুষদের একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে আম্পায়ারিং করেছেন। ফলে অভিজ্ঞতা তাঁর আগে থেকেই ছিল।

ইতিমধ্যেই ক্রিকেট বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শুভেচ্ছাবার্তা পাচ্ছেন ক্লেয়ার পোলোসাক। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া টুইট করে লিখেছে, “প্রথমে পুরুষদের একদিনের ম্যাচ আর এবার টেস্ট ম্যাচে বিশ্বের প্রথম মহিলা আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তোমাকে অনেক শুভেচ্ছা, ক্লেয়ার।”

২০১৯ সালে নামিবিয়া এবং ওমানের বিরুদ্ধে একটি লিগ ডিভিশনের ক্রিকেট ম্যাচে আম্পায়ারিং করেছিলেন পোলোসাক। তবে ভারত এবং এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে চলা সিডনি টেস্টে মাঠের মধ্যে আম্পায়ারিং করছেন দুই প্রাক্তন স্পিড স্টার পল রিফেল এবং পল উইলসন। তৃতীয় (টেলিভিশন) আম্পায়ারের ভূমিকায় রয়েছেন ব্রুস অক্সেনফোর্ড। এছাড়া ম্যাচ রেফারির পদে রয়েছেন ডেভিড বুন।

আইসিসি’র নিয়ম অনুসারে, ঘরোয়া ক্রিকেট বোর্ডই আইসিসি’র আন্তর্জাতিক প্যানেলের মধ্যে থেকে কাউকে নিযুক্ত করতে পারে।

ইতিপূর্বে ২০১৭ সালে পোলোসাক পুরুষদের ঘরোয়া লিস্ট-এ ম্যাচে আম্পায়ারিং করেছেন। চতুর্থ আম্পায়ারের কাজ হল মাঠের মধ্যে নতুন বল নিয়ে যাওয়া, আম্পায়ারদের জন্য পানীয় নিয়ে যাওয়া, মধ্যাহ্নভোজ এবং চা-বিরতির সময় পিচের দেখভাল করা এবং লাইট মিটারের সাহায্যে আলো পর্যবেক্ষণ করা।

কোনও কারণে প্রথম এবং দ্বিতীয় আম্পায়ার খেলা পরিচালনা করতে ব্যর্থ হলে, তৃতীয় আম্পায়ারকে সেই দায়িত্ব গ্রহণ করতে হয়। সেইসময় চতুর্থ আম্পায়ার টেলিভিশন আম্পায়ারের ভূমিকায় থাকেন।

Tags

Related Articles

Back to top button