×
কলকাতানিউজরাজ্য

বাংলার মানুষ বাংলাকে শাসন করবে, বহিরাগত প্রবেশ করতে দেব না, হুঙ্কার মুখ্যমন্ত্রীর

তিনি ভার্চুয়াল সভা থেকে কেন্দ্রকে বলেন, "আমরা করোনা ভাইরাসের মাঝেও এনআরসি, সিএএ ও এনপিআরের কথা ভুলে যাইনি। বিজেপি কাউকে প্রতিবাদ করতে দেয় না"।

Advertisement

করোনা আবহের জেরে এবার প্রতিবারের মতো একুশে জুলাই-এর জনসভা করা সম্ভব হয়নি। তাই এবার ভার্চুয়াল সভা থেকেই বক্তব্য রাখেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই সভায় এদিন তিনি ফের কেন্দ্রকে নিশানা করে কটাক্ষ করলেন। তাঁর কথায় এদিন কেন্দ্রে থাকা বিজেপি সরকারের প্রতি ক্ষোভ উগড়ে পড়ে। এদিন তিনি ভার্চুয়াল সভা থেকে কেন্দ্রকে বলেন, “আমরা করোনা ভাইরাসের মাঝেও এনআরসি, সিএএ ও এনপিআরের কথা ভুলে যাইনি। বিজেপি কাউকে প্রতিবাদ করতে দেয় না”।

Advertisement

করোনার সংক্রমণের মাঝে রাজ্যে আমফানের তান্ডবের কথাও এদিন উল্লেখ করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, ” বাংলাকে যে দল অপমান করবে তার বদলা নেব। সেই বদলা নেব মানবিকতা দিয়ে। কোনো বহিরাগত দল বাংলার শাসন করবে না। বাংলাকে শাসন করবে বাংলার মানুষ”। এছাড়াও তিনি বলেন, বাংলাকে বামফ্রন্ট, কংগ্রেস, বিজেপি সবাই মিলে অপমান করছে। তার বদলা নেওয়া হবে বলে শাসান তিনি।

রাজ্যে আমফান পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাজ্যের ক্ষয়ক্ষতি দেখতে আসেন। সেই বিষয়কে কেন্দ্র করে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমফান পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী এলেন। এক হাজার কোটি টাকা প্যাকেজ দিলেন এবং তা আমরা সঙ্গে সঙ্গে তা কাজে লাগিয়েছি”। মমতা বলেন, ” কেন্দ্রে ক্ষমতায় আছে তাই গায়ের জোর দেখাচ্ছে। একবার বলছে, এনকাউন্টার করো, একবার বলছে হিংসা করো। আপনাদের রাজনৈতিক জন্ম কোথায়? অনেক নেতার তো নামই শুনিনি। তাঁরা কবে রাজনীতিতে এলেন? বিজেপি একটি তুচ্ছ রাজনৈতিক দল”। মমতা স্পষ্ট করেই এদিন বলেন, “গুজরাট বাংলা শাসন করবে না। বাংলার মানুষ বাংলাকে শাসন করবে। কোনো বহিরাগতকে ঢুকতে দেব না”।

Advertisement

Related Articles

Back to top button