নিউজরাজ্য

লক্ষীর ভান্ডারের লাইনে দাঁড়ানো মেয়েদের নিয়ে অশালীন মন্তব্য দিলীপ ঘোষের, বিজেপি রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

এই অভিযোগ দায়ের করেছেন নদীয়া জেলা তৃণমূল সম্পাদক রিয়ানকা দাস ঘোষ



লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য যে সমস্ত মহিলারা লাইনে দাঁড়িয়ে ফরম জমা দিয়েছেন তাদেরকে সরাসরি ভিখারী বলে অপমান করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। নদীয়া শান্তিপুর থানায় তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই মামলা দায়ের করেছেন বেশ কয়েকজন। নদীয়া জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সম্পাদক রিয়াঙ্কা দাস ঘোষ দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘গত 24 আগস্ট এটি অত্যন্ত বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এভাবে মেয়েদের এবং নারীদের সম্পর্কে অপমানজনক মন্তব্য করা ঠিক হয়নি ওনার। আমি তাদের ভীষণভাবে অপমানিত এবং লজ্জিত বোধ করছি।’

ঠিক কি ঘটেছে? শান্তিপুর থানায় বিজিপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে 27 আগস্ট বৃহস্পতিবার রাতে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন নদীয়া জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সম্পাদক রিয়াংকা দাস ঘোষ। তার অভিযোগ, ‘গত 24 আগস্ট বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্য সরকারের লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য যে সমস্ত মহিলারা লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন তাদেরকে ভিখারি বলে আখ্যা দিয়েছেন।’ ঐদিনকার ওই মন্তব্যের পরেই কার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও এই অভিযোগ প্রসঙ্গে নদিয়া দক্ষিণ প্রচার সম্পাদক অংকন সরকার বলেছেন, ‘ঐদিন বড় একটি বক্তব্যের মধ্যে থেকে কয়েকটি কথা নিয়ে বিকৃত করার চেষ্টা করা হয়েছে। আসলে ওদের কোন কাজ নেই, তাই ওরা ভুলভাল কথা বলছেন এবং দিলীপ ঘোষকে টার্গেট করেছেন। এই সমস্ত সস্তার রাজনীতি ছাড়ুন বরং মানুষের পাশে দাঁড়ান। মানুষের হয়ে কাজ করুন। মানুষের সেবা করুন।’

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য বিধানসভা ভোটের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রেখেই লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১ সেপ্টেম্বর থেকে রাজ্যে এই প্রকল্প চালু হয়ে যাচ্ছে বলে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যারা 25 থেকে 60 বছর বয়সী মহিলা রয়েছেন তারা এ লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন। অনলাইনের পাশাপাশি দুয়ারে সরকার প্রকল্পে এর জন্য আবেদন করতে পারবেন আপনারা। রাজ্য সরকারের প্রকল্প জেনারেল ক্যাটাগরি পরিবারের মহিলাকে 500 টাকা এবং তপশিলি জাতি ও উপজাতি পরিবারের কর্তৃকে প্রতি মাসে এক হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

Related Articles

Back to top button