দেশনিউজ

করোনার প্রকোপ! প্রজাতন্ত্র দিবসে বদলে গেল নিয়ম

×
Advertisement

নয়াদিল্লি: করোনাকালে (Coronavirus) বদলে গেল ৫৫ বছরের প্রজাতন্ত্র দিবসের (Republic Day) প্রথা। ২০২১ সালের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে কোনও বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানকে প্রধান প্রধান অতিথি পদে থাকবেন না। বৃহস্পতিবার (Thursday) বিদেশ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এমনটাই।

Advertisement

প্রাথমিকভাবে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে এ বছরের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানান হয়েছিল। সে আমন্ত্রণ তিনি গ্রহণ করলেও পরবর্তীতে করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেনে ব্রিটেন বিপর্যস্ত হয়ে পড়লে ভারত সফর বাতিল করেন বরিস জনসন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক সাংবাদিক সম্মেলন করে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, কোভিড-১৯ মহামারির জন্য যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তার কারণেই ভারত সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে এই বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে কোনও বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান থাকবেন না।

যদিও ভারত সফর বাতিলে দু:খ প্রকাশ করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখপাত্র বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা বলেছেন। এ মাসের শেষের দিকে ভারত সফরে আসার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। কিন্তু সেটি বাতিল হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। দেশজুড়ে এখন লকডাউন জারি হয়েছে। যে হারে বেড়ে চলেছে করোনা এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী স্থির করেছেন তিনি ব্রিটেন ছেড়ে কোথাও যাবেন না। এই ভাইরাসের মোকাবিলা করতে দেশে থাকা তাঁর প্রয়োজন।”

Advertisement

জানা গিয়েছে এ বছর ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনে সেনাবাহিনীর তরফে ছোট পদযাত্রা করা হবে। দুরত্ব বিধি মেনে চলবে কুচকাওয়াজ। প্রতি বছর প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ ভারতের সামরিক শক্তি, সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য এবং আর্থ-সামাজিক অগ্রগতির এক দর্শনীয় প্রদর্শন হয়ে ওঠে। কিন্তু এ বছর সেখানে কিছুটা রাশ টানা হয়েছে।

নয়াদিল্লির ডিসিপি অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে একটি টুইটে জানিয়েছেন যে প্রজাতন্ত্র দিবস উদযাপনের জন্য কেবল মাত্র ২৫ হাজার দর্শকদের আমন্ত্রিত করা হচ্ছে। বৈধ আমন্ত্রণকারীরা একমাত্র অনুমতি পাবেন অনুষ্ঠানে আসার। করোনা পরিস্থিতির কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত।

Related Articles

Back to top button