দেশনিউজ

ধর্ষণে অভিযুক্তকে প্রার্থী করার প্রতিবাদ নিয়ে ধুন্ধুমার, ফের অশান্তি উত্তরপ্রদেশে

Advertisement

হাথরস কান্ডের মাত্র কিছু দিন পেরিয়েছে এই নিয়ে এখনো সারা দেশ উত্তাল। এবার ধর্ষণে অভিযুক্ত নেতাকে কেন উপনির্বাচনে প্রার্থী করা নিয়ে বাধল শোরগোল। এই বিষয় নিয়েই দলীয় দফতরে প্রতিবাদ জানাতে গিয়েছিলেন এক মহিলা কংগ্রেস কর্মী৷ আজ এই ঘটনাউ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর প্রদেশের দেওরিয়ার কংগ্রেস অফিস৷ এর পরেই দলের প্রার্থীকে প্রশ্ন করায় উল্টে ওই মহিলা কর্মীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন পুরুষ কংগ্রেস কর্মীরা৷

ওই এলাকার উপনির্বাচনের জন্য কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে মুকুন্দ ভাস্কর মণি ত্রিপাঠীকে প্রার্থী করা হয়েছে। এদিকে মুকুন্দ ভাস্করের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ থাকার পরেও তাকে প্রার্থী করা নিয়ে ঝামেলা বাধে।  দলীয় কর্মী তারা দেবী জাতীয় সম্পাদক এবং পূর্বাঞ্চলে দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত অন্যতম নেতা সচিন নায়াকের দিকে পুষ্প স্তবক ছুড়ে মারে এরপরেই দু পক্ষের হাঙ্গামা শুরু হয়ে যায়।

সব মিলিয়ে প্রতিদিনই এক একটা ঘটনা নিয়ে উত্তরপ্রদেশ উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে। তবে এদিনের এসব কিছুর অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কংগ্রেস প্রার্থী মুকুন্দ ভাস্কর মণি ত্রিপাঠী৷ প্রসঙ্গত, কিছু দিন ধরেই উত্তরপ্রদেশের ওই দলিত কন্যার ঘটনা নিয়ে সারা দেশ তোলপাড়। জানা গিয়েছে ধর্ষণের অভিযোগের ১১ দিন পরে ওই তরুণীর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল।

এতদিন পরে ধর্ষণের প্রমাণ পাওয়া সম্ভব নয়। ফলত ধর্ষণ হয়েছে কিনা তাও বোঝা সম্ভব নয়। অন্য দিকে পরিবার বলছে গণধর্ষণ করে খুন হয়েছে ওই তরুণীর।গত শনিবার সন্ধ্যাবেলায় পীড়িতার পরিবারের বয়ান নথিভুক্ত করার জন্য সিট হাথরসে পৌঁছয়৷ কিন্তু নির্যাতিতার বাবার স্বাস্থ্য একেবারে ঠিক নেই৷ সব মিলিয়ে পরিস্থিতি ক্রমশই জটিল হয়ে যাচ্ছে। এর আগে প্রতিবাদে সরব হয়েছে কংগ্রেসের দলীয় নেতারা।

Tags

Related Articles

Back to top button