নিউজরাজ্য

দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে বিস্তর কথা কাটাকাটি, হাসপাতালে ভর্তি চন্দনা বাউরির গাড়ি চালক কৃষ্ণ কুন্ডু

যদিও ফেসবুক লাইভে চন্দনা দাবি করেছিলেন, তার সঙ্গে কৃষ্ণর কোনো সম্পর্ক নেই।



বিধায়কের দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে ব্যাপক সমস্যা। আর তার জেরেই এবারে অসুস্থ হয়ে পড়লেন তার গাড়ির চালক। শালতরার বিধায়ক চন্দনা বাউড়ির এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য এলাকায়। তার গাড়ির চালক কৃষ্ণ কুন্ডুকে গতকাল বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করানো হয়েছে। তার স্ত্রী রুম্পা অভিযোগ জানিয়েছেন, দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে বিতর্কের জেরে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিনি। অন্যদিকে আবার, বিধায়কের স্বামী বলেছেন, তৃণমূলের সঙ্গে হাত মিলিয়ে এই কাজ করেছে কৃষ্ণ।

শোনা যায় নাকি বুধবার রাত্রে নিজের গাড়ি চালক কৃষ্ণ কুন্ডু সঙ্গে বিবাহ করে নিয়েছিলেন শালতোড়া বিধায়ক চন্দনা বাউরী। সেই সময় বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশ্যে চলে আসে। এই ছবিগুলি দেখে অনেকের মনে হয় কৃষ্ণ এবং চন্দনা বিবাহ করেই নিয়েছেন। অন্যদিকে আবার চন্দনার স্বামী সন্তান থাকা সন্ত্বেও তিনি একটি বিবাহ করেছেন, মর্মে তার নামে মামলা দায়ের করা হয়। কৃষ্ণর স্ত্রী তার এবং তার স্বামীর বিরুদ্ধে বাঁকুড়া গঙ্গাজলঘাটি থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তবে, পরের দিন ফেসবুক লাইভে এসে তিনি বলেন, তারা বিবাহ করেননি। তিনি বলেন, স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া হওয়ার কারণে তিনি থানায় গিয়েছিলেন, কিন্তু পরে সব মিটমাট হয়ে গেছিল। তবে কৃষ্ণের স্ত্রী রুম্পা দাবি করেছিলেন, তার সেই ঘটনার পরে কৃষ্ণ ও তার স্ত্রীর মধ্যে সমস্যা শুরু হয়েছিল। আর এই সমস্যার কারণেই অসুস্থ তার স্বামী কৃষ্ণ কুন্ডু। তার কারণেই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এখনো সেখানে তার স্বামীর সাথে আছেন তিনি।

যদিও ফেসবুক লাইভে চন্দনা দাবি করেছিলেন, তার সঙ্গে কৃষ্ণর কোনো সম্পর্ক নেই। শুধুমাত্র তার চরিত্রে দাগ লাগানোর জন্য তার বিরোধীরা এই কাজ করেছেন। তার স্বামী দাবি করেছেন, কৃষ্ণর সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্ক আছে, সে তৃণমূলের সঙ্গে হাত মিলিয়ে এই কাজ করেছেন। এই সমস্ত ব্যাপারটি গুজব এবং শুধু তার স্ত্রী চন্দনার নাম খারাপ করার জন্য এই কাজ করেছেন তৃণমূল নেতারা। যদিও, গোপন সূত্রের খবর, চন্দনার সঙ্গে তার গাড়ি চালকের সম্পর্ক ভোটের আগে থেকেই। তার সঙ্গে এই অবৈধ সম্পর্ক স্থাপিত হওয়ার জন্যই নাকি চন্দনার সঙ্গে তার স্বামীর সম্পর্কে চির ধরেছিল।

Related Articles

Back to top button