নিউজপলিটিক্স

BREAKING: জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, জেনে নিন তিনি ঠিক কি বলেছেন!

Advertisement

রাজীব ঘোষ : প্রথমে বিকেল ৪ টের সময় বলা হলেও পরে সময় পরিবর্তন করে জানানো হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাত ৮ টায় জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন।জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকে একের পর এক ইন্ধনমূলক কাজ করে চলেছে পাকিস্তান। ৩৭০ ধারা বাতিল করে জম্মু-কাশ্মীরকে ভেঙে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার ব‍্যাখ‍্যা দিতেই জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভাষণ দিলেন।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুরুতে বলেন, এমন একটা ব‍্যবস্হা ছিল যাতে কাশ্মীর, লাদাখের মানুষ অনেক সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলেন।জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখের মানুষ এখন থেকে দেশের সব নিয়মের মধ্যে সুবিধা পাবেন।

এবার তারা বঞ্চনা থেকে মুক্তি পাবেন।সর্দার বল্লভভাই পটেলের স্বপ্ন সফল হবে।জম্মু-কাশ্মীরের মানুষদের অভিনন্দন।তাদের স্বপ্ন পূরণ হবে এবার।অনেকে ভেবেছিলেন কোনোদিন কিছুই পরিবর্তন হবে না। ৩৭০ ও ৩৫এ ধারার জন্য কাশ্মীরে সন্ত্রাস বেড়েছে।বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সংখ্যা বেড়েছে।এবার ৩৭০ ধারা বাতিলের ফলে সন্ত্রাস কমবে। কাশ্মীরের মানুষকে ব‍্যবহার করত পাকিস্তান। ৪২ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।মোদী বলেন, জম্মু-কাশ্মীরকে অস্ত্র হিসেবে ব‍্যবহার করেছে পাকিস্তান।জম্মু-কাশ্মীরের উন্নতি বারবার বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।আইন তৈরির সময় সংসদে হট্টগোল হয়।

দলিতদের উপর অত‍্যাচার বন্ধের আইন আছে, কিন্তু কাশ্মীরের বাসিন্দারা বঞ্চিত।আইন তৈরী হয় মানুষের ভালোর জন্য।কাশ্মীরে কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়বে।জম্মু-কাশ্মীরের মহিলারা কোনো সুবিধা পাননি।পূর্ববর্তী সরকার আইন তৈরী করেছিল, কিন্তু সেটা কার্যকর হয়নি।জম্মু-কাশ্মীরের পুলিশ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সব সুবিধা পাবেন।এখানকার মানুষ সব সুবিধা থেকে এতদিন বঞ্চিত ছিল।আগের কোনো সরকার এসব ভাবে নি।জম্মু-কাশ্মীরে সব শূন্য সরকারি পদ পূরণ করা হবে।শীঘ্রই এই কাজ শুরু করা হবে।পড়ুয়ারা কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধা পাবেন।এবার জম্মু-কাশ্মীরের প্রভূত উন্নতি হবে।সেচ,বিদ্যুৎ প্রকল্প তৈরী হবে।সব সরকারি কর্মীরা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সুবিধা পাবেন।এতদিন জম্মু-কাশ্মীরবাসীর ভোটাধিকার খর্ব হতো।সব রাজ‍্যের মানুষ সমস্ত নির্বাচনে লড়াই করতে পারেন।কিন্তু কাশ্মীরে সেটা হতো না।

বিগত বছরগুলোতে বিধানসভা ,পঞ্চায়েত সহ অন্যান্য নির্বাচনে ভোট দিতে পারতেন না কাশ্মীরবাসীরা।দুর্নীতি মুক্ত প্রশাসন আমাদের লক্ষ্য।এবার আপনারাই আপনাদের নেতা নির্বাচিত করবেন।ঘরে ঘরে বিদ‍্যুৎ পৌঁছে দিতে পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের ভূমিকা অনস্বীকার্য।এখানে পঞ্চায়েত, বিধানসভা ভোট ঠিকঠাক হতো না।কাশ্মীরে আগে প্রচুর সিনেমার শুটিং হতো।পরে সেটা বন্ধ হয়ে যায়।সেই কাজ আবার শুরু হবে।জম্মু-কাশ্মীরের মানুষ নিজেরা তাদের মুখ‍্যমন্ত্রী নির্বাচিত করতে পারবেন।যত প্রযুক্তির বিকাশ হবে ততই কাশ্মীরের উন্নতি হবে।লাদাখ, কাশ্মীরে পর্যটন শিল্পে জোর দেওয়া হবে।

এবার খেলাধুলায় এগিয়ে যাবে কাশ্মীর।জম্মু-কাশ্মীরের পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা হয়েছে।ওরা কাজ করার সুযোগ পেলে অনেক উন্নতি হবে।এখানকার উন্নতির জন্য সাহায্য করুক বিরোধীরা।বিপক্ষের মতকে গুরুত্ব দেওয়া হবে।জম্মু, কাশ্মীর, লাদাখ ভারতের সঙ্গে যুক্ত।মুষ্টিমেয় কিছু লোক বিরোধিতা করছেন।আগামী দিনে জম্মু-কাশ্মীরে নির্বাচন হবে।খুব বেশিদিন জম্মু-কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল থাকবে না।একজোট হয়ে জম্মু, কাশ্মীর, লাদাখের উন্নতিতে কাজ করতে হবে।যারা ঘরে ফিরতে চান, তাদের ঘরে ফেরানোর দায়িত্ব আমার।যারা সন্ত্রাসবাদ,বিচ্ছিন্নতাবাদে মদত দিচ্ছেন, কাশ্মীরবাসী তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে।সন্ত্রাস মুক্ত কাশ্মীর আমাদের একমাত্র লক্ষ্য, বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।ধন্যবাদ জানিয়ে ভাষণ শেষ করেন প্রধানমন্ত্রী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button