নিউজরাজ্য

জব কার্ড চাইতে গিয়ে বেধড়ক মার খেলেন দুই মহিলা, অভিযোগ স্থানীয় বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে

Advertisement

বিজেপি নেতার কাছে জব কার্ড চাইতে গিয়ে এবার বেধড়ক মার খেলেন দুই গৃহবধূ। দীর্ঘদিন ধরে তাদের জব কার্ড আটকে রেখেছিল এলাকার বিজেপি নেতা। এই অভিযোগে ওই নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে ইতিমধ্যে। তাদের জব কার্ড আটকে রেখে দীর্ঘদিন ধরে হেনস্থা করা হয়েছিল বলেও অভিযোগ তাদের। এদিন তারা নিজে থেকে জব কার্ড চাইতে গেলে, তাদের দুজনকে ধরে বেধড়ক মারধর এবং শারীরিক নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনার পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

এই ঘটনাটি উত্তর ২৪ পরগনার হাড়োয়া থানার গোপালনগর ১ নম্বর পঞ্চায়েতের দাসপাড়া গ্রামের। এই গ্রামের বিজেপি নেতা তুফানে রুইদাস ১০০ দিনের জন্য ওই দুই মহিলার জব কার্ড আটকে রেখেছিল। তারপর বাধ্য হয়ে, বৃহস্পতিবার ওই দুই মহিলা তুফান রুইদাস এর কাছে তাদের জব কার্ড চাইতে যায়। সেখানেই ঘটে বিপত্তি। জব কার্ড চাইতে গেলে তুফান রুইদাস এবং তার লোকজন ওই দুই মহিলাকে মাটিতে ফেলে বেধড়ক মারধর করে।

তাদের দুজনের শ্লীলতাহানি করা হয়েছে বলেও তার অভিযোগ। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে তুফান রুইদাস এর বিরুদ্ধে। এছাড়াও অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বিট্টু দাস, সুমন দাস এবং শুকদেব দাস এর উপরে। এই ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে সম্পূর্ণ এলাকায়। আক্রান্ত দুই মহিলা বর্তমানে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এলাকার লোকজন তাদেরকে জখম অবস্থায় ওই হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও বিজেপি নেতা তুফান রুইদাস এই মারধরের অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছেন। ওই মহিলাদের বিরুদ্ধে হাড়োয়া থানায় পাল্টা মানহানির মামলা দায়ের করেছেন বিজেপি নেতা। যদিও ঘটনার পিছনে শুধুই জব কার্ড হয়েছে কিনা তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

Tags

Related Articles

Back to top button