টলিউডবিনোদন

Nusrat Jahan: ঈশানকে জন্মের সময় ওটিতে শুনেছেন ইংরেজি গান, এখন ছেলের ভালো মন্দ নিয়ে দিন কাটছে নুসরতের



গতকাল অবশেষে সমস্ত জল্পনা, গুঞ্জনের শেষ হল। নুসরতের মা হতে চলার খবর প্রকাশ্যে আসার আড়াই মাসের মাথায় বৃহস্পতিবার দুপুর বেলা সন্তানের জন্ম দিলেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ। গত আড়াই মাসে অভিনেত্রীর প্রেগনেন্সির খবর প্রকাশ্যে আসতে অনেকেই এই শিশুর বাবা কে এই নিয়ে আসে নানান প্রশ্ন। পিতৃতান্ত্রিক সমাজের তোয়াক্কা না করেই সিঙ্গেল মা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অভিনেত্রী।

নুসরত শুধু টলিউডের প্রথম শ্রেণীর অভিনেত্রী নন। এর বাইরেও নুসরতের একটা বিরাট পরিচয় রয়েছে। তিনি বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ। তৃণমূলের এই সাংসদকে ঘিরে জাতীয় স্তরেও বেশ চর্চায় ছিলেন। এর কারণ আছে। অভিনেত্রীর প্রথম অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসতেই অভিনেত্রীর প্রাক্তন স্বামী এই শিশুর বাবা নন বলে অস্বীকার করেন। সেই সময় অভিনেত্রী নিজের বিয়ে অস্বীকার করেন অভিনেত্রী। অন্যদিকে হাসপাতাল সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, আপাতত নিজের পরিচয়েই ছেলেকে হাসপাতালে ভর্তি রাখতে চান অভিনেত্রী। হাসপাতাল ফর্মে ছেলেকে এখনও বাবার নাম হিসেবে কারও ‘নাম’ উল্লেখ করেননি তিনি।

অভিনেত্রীর মা হওয়ার খবর নিয়ে যতই বিতর্ক থাক, তাঁর সন্তান সুস্থ আছে শুনে খুশি সকলেই। অনেকেই কুর্নিশ জানিয়েছেন নতুন মায়ের লড়াইকে। অনেকে নুসরত পুত্রের ছবি দেখার আবদার ও করেছেন তবে এখনো সোনা ছেলের মুখ দেখা যায়নি। তবে ইতিমধ্যেই সামনে এসেছে নুসরতের প্রথম সন্তানের নাম। ‘বিশেষ বন্ধু’ যশের নামের সঙ্গে মিলিয়ে আদুরেদ ঈশান। এখন হাসপাতালে অভিনেত্রীর ঈশানকে নিয়ে দিন রাত কেটে যাচ্ছে। কাল থেকেই সদ্যজাতকে ব্রেস্ট ফিডিং করানোও শুরু করে দিয়েছেন নুসরত। এই একরত্তির খিদে পাচ্ছে কি না, বা কোনও অসুবিধা হচ্ছে কি না, তা সব সময় নজরে রাখছেন অভিনেত্রী।

এক সংবাদমাধ্যমে জানা গিয়েছে, ছেলেকে জন্ম দেওয়ার আগে অভিনেত্রীর ওটি যাওয়ার সফরে ছিলেন যশ। তারপরেই ওটিতে নিয়ে যেতে অভিনেত্রীকে অ্যানেস্থেশিয়ার পরেই নুসরতের ছেলে জন্মানোর সময়ে পছন্দের গান চালানো হয়েছিল ওটি রুমে। ডেলিভারির সময় যাতে তিনি পুরোপুরি চিন্তামুক্ত আর ভয় না পান তাই তাঁর প্রিয় গান চালানো হয়। ওটি-তে নুসরতের সমস্ত পছন্দের ইংরেজি গান বাজানো হয়। তারপর বাজে বলিউডের একাধিক গানও। তবে ছেলেকে নিয়ে কবে বাড়ি ফিরবে তা জানা যায়নি। জানা গিয়েছে রবিবার শিশুর বেশ কিছু পরীক্ষা করা হবে। তারপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, কবে মা ও ছেলেকে হাসপাতাল থেকে ছুটি হবে। আপাতত হালকা হাঁটাচলা করছেন সাংসদ-অভিনেত্রী।

Related Articles

Back to top button