নিউজরাজ্য

বিকাশ ভবনের সামনে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা ৫ শিক্ষিকার, ঘটনা ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য

এই পাঁচ শিক্ষিকার বিষ খাওয়ার কারণ কি ছিল?



অন্যত্র বদলির অভিযোগে প্রকাশ্য রাস্তায় বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন পাঁচজন শিক্ষিকা। ঘটনাটি ঘটেছে খোদ বিকাশ ভবনের সামনে। পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা দপ্তর এর হেড অফিস বিকাশ ভবনের সামনে এদিন শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের বিক্ষোভে পরিস্থিতি চরমে ওঠে। এই বিক্ষোভের মধ্যেই ৫ জন শিক্ষিকা বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। শেষ পাওয়া খবরে জানা যাচ্ছে এখনো পর্যন্ত সকলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই প্রতিবাদে বিষ খাওয়া এক জন শিক্ষিকা অনিমা নাথ বললেন, ‘আজকে আমরা সবাই বিষ খেয়েছি। আমরা মরে যাব, আমরা বাঁচবো না। আমি সম্পূর্ণরূপে বৃত্তিমূলক শিক্ষিকা। এ রাজ্যে আমাদের কিছুই হবে না।’ তারা অভিযোগ জানাচ্ছেন তাদেরকে বেনিয়ম করে বদলি করে দেওয়া হয়েছে। এসএসকে এবং এমএসকে এর পাঁচজন শিক্ষিকাকে এইভাবে বদলি করার দাবিতে তারা বিক্ষোভ শুরু করেছেন। এরপরে বিকাশ ভবনের সামনে প্রকাশ্য রাস্তায় বিষ খেয়ে তার আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তারপর মুখ থেকে গ্যাজলা উঠতে শুরু করলে তাদেরকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

অসুস্থ অবস্থায় ওই শিক্ষিকারা অভিযোগ তোলেন, এক জেলা থেকে দূরের কোনো একটি জেলায় শিক্ষিকাদের বদলি করে দেওয়ার কোন মানে নেই। তা সত্তেও এই সরকার এরকম আচরণ করেছে। অভিযোগ উঠেছে, মুর্শিদাবাদে ভগবানগোলার শিক্ষিকা ফাজিলাকে দক্ষিণ দিনাজপুরে বদলি করে দেওয়া হয়েছে। মুর্শিদাবাদের আরো একজন শিক্ষিকা কে বদলে দেওয়া হয়েছে জলপাইগুড়িতে।

জ্যোৎস্না টুডু নামের একজন শিক্ষিকাকে মেদিনীপুর থেকে বদলি করে দেওয়া হয়েছে জলপাইগুড়িতে। শিখা দাস নামের অপর আরেকজন শিক্ষিকাকে পূর্ব মেদিনীপুর থেকে সোজা দক্ষিণ দিনাজপুরে বদলি করে দেওয়া হয়েছে। পুতুল মন্ডল নামের একজন শিক্ষিকা কে দক্ষিণ ২৪ পরগনা থেকে সরাসরি বদলি করে দেওয়া হয়েছে কোচবিহার জেলায়। এদিন শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের বিক্ষোভ থেকে সরাসরি স্লোগান ওঠে ব্রাত্য বসুর পদত্যাগের। তার পাশাপাশি, লাগাতার অভিযোগ করতে থাকেন, বৃত্তিমূলক শিক্ষিকাদের এরকম বদলি সম্পূর্ণরূপে অনৈতিক।

Related Articles

Back to top button