দেশনিউজ

প্রকৃতির রোষানলে একদল হাতি, বজ্রাঘাতে ২০ টি হাতির মৃত্যু অসমে

বজ্রপাতের ফলে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান করা হচ্ছে

×
Advertisement

ফের প্রাণ গেল একদল হাতির। তবে এবার মনুষ্যসৃষ্ট অপরাধ নয়। প্রকৃতির রোষে অসমের নওগাঁ জেলায় মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে ২০ টি হাতির। জানা গেছে গত বুধবার রাতে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের জেরে নওগাঁ বামুনি পাহাড়ে বাজ পড়ে। সেই বাজের আঘাতেই হাতিগুলি বেঘোরে মারা গেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা যাচ্ছে। প্রথমত বৃহস্পতিবার সকালে ১৮ টি হাতির দেহ উদ্ধার হয়েছিল এবং তারপর আরও ২ টি হাতির দেহ পাওয়া যায়। মৃতদেহগুলি কাঠিয়াটোলি অভয়ারণ্যের কুণ্ডোলি এলাকা থেকে উদ্ধার হয়।

Advertisement

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে যে, গত বুধবার রাতে ব্যাপক বজ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টিপাত হয় ওই অঞ্চলে। বজ্রপাতের সময় হাতির আর্তনাদ শুনতে পায় তারা। পরের দিন সকালে মৃত ২০ টি হাতি উদ্ধার হয় যার মধ্যে ১৮ টি প্রাপ্তবয়স্ক ও ২ টি শাবক। ইতিমধ্যেই ঘটনার ওপর আলোকপাত করেছে বন বিভাগ। তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক তদন্ত করেছে। প্রাথমিক তদন্তের পর বনদপ্তর এর দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক অমিত সহা জানিয়েছেন যে সবকটি হাতির মৃত্যু বাজ পড়ে হয়েছে। একসাথে এতগুলো হাতি তাছাড়া মারা যেতে পারে না। এরপর হাতির মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়াও অসমের বনমন্ত্রী আজ ঘটনাস্থলে যাবেন বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, হাতির মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের আগে মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা সম্ভব নয়। তবে প্রাথমিক অনুমান করে মনে হচ্ছে যে বজ্রপাতের ফলে ২০ টি হাতির মৃত্যু হয়েছে।

Advertisement

Related Articles

Back to top button