নিউজপলিটিক্স

কাশ্মীর নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় দেশ

Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: গত কয়েকদিন ধরে ভূস্বর্গে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে উদ্বেগে সারা দেশ। কাশ্মীরে কেন্দ্রীয় সরকারের অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন নিয়ে চাপান-উতোর শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। বেশ কয়েক মাস ধরে জম্মু ও কাশ্মীরে কোন নির্বাচিত সরকার নেই। বিধানসভা ভোটের ঘোষণা হতে পারে যে কোন দিন। সেই প্রেক্ষিতে কাশ্মীরে অতিরিক্ত সেনা পাঠানোয় বিজেপির রাজনৈতিক অভিসন্ধি দেখছে সেখানকার স্থানীয় দুই প্রধান রাজনৈতিক দল। সেনার তরফে যদিও একে রুটিন মার্চ বলেই উল্লেখ করা হয়েছে। তবে আইনশৃঙ্খলার অবনতির কথা জানিয়ে পিডিপি ও ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতৃত্বে ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকের অনুমতি দেননি রাজ্যপাল।

এদিকে দিল্লিতে কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল এক দীর্ঘ আলোচনায় বসেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কাশ্মীরে শান্তি শৃঙ্খলার দায়িত্বে থাকা সেনা বাহিনীর কর্তা, র, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টাকে নিয়ে আলোচনার সিদ্ধান্ত বাইরে প্রকাশ না করলেও কাশ্মীর নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যে বড়সড় কোন সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন তা বলায় যায়।

আজ কাশ্মীরে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে উত্তাল হতে পারে সংসদের দুই কক্ষ। বিরোধীরা প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করে বিক্ষোভ দেখাতে পারে বলে সূত্রের খবর। কেন্দ্র সরকার মুখে কুলুপ আঁটলেও কাশ্মীরের জন্য সংবিধানের ৩৫এ এবং ৩৭০ নং ধারা তুলে নেওয়ার বিষয়ে সন্দেহের বাতাবরণ সৃষ্টি হয়েছে এ দেশের রাজনৈতিক মহলে। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার ঠিক কী সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে, সেদিকেই তাকিয়ে গোটা দেশ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button